যশোর হাসপাতালে কর্মরত ৮৬ কর্মকর্তা কর্মচারী রাজস্ব খাতে স্থানান্তরিত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ‘১০০ শয্যা বিশিষ্ট যশোর জেনারেল হাসপাতালকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ’ শীর্ষক প্রকল্পে কর্মরত ৮৬ জন কর্মকর্তা কর্মচারীকে রাজস্ব খাতে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৫ জন চিকিৎসক এবং ৭১ জন ৩য় এবং ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারি রয়েছেন। গতকাল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ নাসির উদ্দীন স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানানো হয়। বিষয়টি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবুল কালাম আজাদ লিটুও নিশ্চিত করেছেন। এরমধ্যে দিয়ে গত ২০ বছর ধরে আটকে থাকা জটিলতার অবসান ঘটেছে। এদিকে সংবাদটি হাসপাতালে পৌছালে কর্মরত ৮৬ জন কর্মকর্তা কর্মচারিদের মধ্যে আনন্দ উল্লাস করতে দেখা যায়।
অফিস আদেশে বলা হয়েছে, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ৩১.১০.২০১৩ তরিখের ০৫.১৫৯.০১৫.৪৫.০০.০৫০.২০১২-৩৭৭ স্মারক, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের বাজেট অনুবিভাগ-১, এবং অর্থ বিভাগের বাস্তবায়ন শাখা-৩, এসআর নং-২০৬ আইন/২০১৯ তারিখ-১৮ জুন ২০১৯ মোতাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ১০০ শয্যা বিশিষ্ট যশোর জেনারেল হাসপাতালের ২৫০ শয্যা উন্নীতকরণ শীর্ষক উন্নয়ন প্রকল্পের প্রথম শ্রেণির (ডাক্তার) ১৫ জন ও ৩য়-৪র্থ শ্রেণির (কর্মকর্তা-কর্মচারি) মোট ৭১ জনকে রাজস্ব বাজেটে স্থানান্তরিত স্থানান্তরিত করা হলো।
উল্লেখ্য যে, ১৯৯৮ সালে এই ৭১ জন কর্মকর্তা-কর্মচারি একশ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের উন্নয়ন প্রকল্পে যোগদান করেন। পরে ২০০৩ সালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে নিয়োগ চূড়ান্তের কার্যক্রম শুরু হয়। দীর্ঘ ২০বছর পরে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় তাদের যোগদান পত্রের কাগজপত্র ঘুরে অবশেষে অর্থমন্ত্রণালয় তাদেরকে রাজস্ব খাতভুক্ত করলো।

শেয়ার