৪৭ বছরেও এমপিওভুক্ত হয়নি শালিখার একটি মাদ্রাসা

শালিখা প্রতিনিধি ॥ শালিখা উপজেলার সাবেক খাটর ইবতেদায়ী মাদরাসা ১৯৭৩ সালে স্থাপিত হলেও আজঅব্দি এমপিওভুক্ত হয়নি। টানা এই ৪৭ বছর ধরে প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরতরা এক ধরণের মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এরইমধ্যে অনেক শিক্ষক খালী হাতে অবসর নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
জানা যায়, মাদরাসাটি বোর্ড স্বীকৃতি রয়েছে, যার কোড নং-৮১/০৫। প্রতিষ্ঠাতা ও জমিদাতা সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছালাম সর্দারসহ অনেকেই জানান, মাদরাসা গড়ার জন্য ১৯৭৩ সালে সাবেক খাটর মৌজার ২ দাগে ৬৭ শতক জমি দান করা আছে। তৎকালীন সভাপতি আবু বক্কর মোল্যাকে সাথে নিয়ে মাদরাসার কার্যক্রম শুরু করেন এলাকাবাসী। তৎকালীন প্রধান শিক্ষক আব্দুল সালাম, গোলাম রসুল, গোলাম মোস্তফা, কারী ওহিদুর রহমান দীর্ঘদিন শিক্ষকতা করে খালী হাতে অবসরে চলে গেছেন। বর্তমান প্রতিষ্ঠানে প্রধান শিক্ষক হীরা খাতুন, সহকারী শিক্ষক জান্নাতুল মিয়া, জেরিন খাতুন, নাছিম সর্দার সহ ৫জন শিক্ষক অনেক প্রতিকুলের মধ্যে প্রতিষ্ঠান চালাচ্ছেন। শুরু থেকে মাদরাসার পর্যাপ্ত ছাত্র ছিল। শিক্ষকদের নিজস্ব অর্থায়নে একটি ভবন তৈরি করে ছাত্রছাত্রীদের পাঠদান করছেন। গত ১৯৯৩ সালে শিক্ষা জরীপে দেখা যায়, প্রথম শ্রেণিতে ৬০ জন, দ্বিতীয় শ্রেণিতে ৫০ জন, তৃতীয় শ্রেণিতে ৪৫জন, চতুর্থ শ্রেণিতে ৪০ জন ও পঞ্চমে ৪০ জন শিক্ষার্থী লেখাপড়া করেছে। ঐ বছরে প্রতিষ্ঠানের ০১-০১-১৯৯৩ থেকে ৩১-১২-১৯৯৪ পর্যন্ত স্বীকৃতি দেখা যায়। উপবৃত্তির আওতায় ছিল ছাত্র ছাত্রীরা। বর্তমানে উপবৃত্তি চালু না থাকায় ছাত্র ছাত্রীর সংখ্যা কমে গেছে। শিক্ষদেরও বিনা বেতনের এই চাকরিতে অনীহা দেখা দিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিকে এমপিওভুক্ত করার জন্য শিক্ষকমন্ডলী ও এলাকার অভিভাবক মহল জোর দাবি জানিয়েছেন।

শেয়ার