কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

সমাজের কথা ডেস্ক॥ কুষ্টিয়ায় এক কলেজ ছাত্রীকে উত্ত্যোক্তের প্রতিবাদ করায় তার ভাইকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার দায়ে একটি হত্যা মামলায় একজনকে মৃত্যুদ- দিয়েছে আদালত।
মঙ্গলবার কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী আসামির উপস্থিতিতে দেড় বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।
মৃত্যুদ-প্রাপ্ত উজ্জ্বল ইসলাম ওরফে উজ্জ্বল শেখ (২৮) কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাতিয়া পূর্বপাড়া গ্রামের খবির উদ্দিন সেখের ছেলে বলে কুষ্টিয়া জজ কোর্টের সরকারি আইনজীবী অনুপ কুমার নন্দী জানান, মামলার বিবরণে বলা হয়, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের ছাত্র উজ্জ্বল তার এক সহপাঠীকে বার বার প্রেমের প্রস্তাব দিলেও মেয়েটি তাতে রাজি হয়নি।
এর জেরে ২০১৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মিরপুর উপজেলার বালিয়াসিসা গ্রামে মেয়েটির বাড়ি যায় উজ্জ্বল। এ সময় মেয়েটির ভাই আব্দুল্লাহ তাকে বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেয়।
এতে উজ্জ্বল রেগে গিয়ে তার সঙ্গে থাকা একটি ধারালো ছুরি দিয়ে আবদুল্লাহকে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় তার চিৎকার শুনে মা সুফিয়া খাতুন ও চাচাত ভাই শাজাহান আলী ঠেকাতে গেলে তাদেরও কুপিয়ে জখম করে উজ্জ্বল। পালিয়ে যাওয়ার সময় আশপাশের লোকজন উজ্জ্বলকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পরে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে আব্দুল্লাহর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা উজ্জ্বলকে একমাত্র আসামি করে ১৫ ফেব্রুয়ারি মিরপুর থানায় মামলা করেন।
তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ৩০ জুন পুলিশ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করলে এ মামলার বিচারকাজ শুরু হয়।

শেয়ার