লোহাগড়ায় পিআইওর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ ।। বদলিসহ দুর্নীতির তদন্ত দাবি করে কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সভা

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি॥ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) এস.এম.এ করিমের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারি আচরণ বিধিমালা এবং সরকারি কর্মচারী শৃংখলা ও আপিল বিধি ভঙ্গের অভিযোগে প্রতিবাদ সভা করেছে সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সভাকক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে পিআইও’র বদলিসহ তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, লোহাগড়া উপজেলা সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের আয়োজনে সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এসএমএ করিমের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা এবং সরকারি কর্মচারী শৃংখলা ও আপিল বিধি ভঙ্গের অভিযোগে ইউএনও অফিসের সুপার ও লোহাগড়া উপজেলা সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি আইনুল হকের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন ডিসি অফিসের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মুরর্শিদুল আলম মোরাদ, জেলা সমন্বয় পরিষদের সভাপতি কামরুল গাজী, সাধারণ সম্পাদক তারিক হাসান, উপদেষ্টা রেজাউল ইসলাম, ইউএনও’র অফিস সহকারি শরিফুল ইসলাম প্রমুখ। এরআগে গত ১২ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন ওই দপ্তরের অফিস সহকারী জিয়াউর রহমান। তার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পিআইও করিম প্রতিনিয়ত নিজ দপ্তরের অফিস সহকারীকে দিয়ে অফিসের কাজের বাইরেও ব্যক্তিগত কাজ করাতে বাধ্য করেন। নানা অজুহাতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কথায় কথায় অশালীন ভাষায় গালাগালি করেন। অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিয়মিত অফিস না করায় জরুরী অনেক কাজ পেন্ডিং পড়ে আছে। আর যেসব কাজ করে অনৈতিক সুবিধা পান সেইসব কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকেন। জিয়াউর রহমানের অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর উপজেলা সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ এক জরুরি সভার আয়োজন করে। সভায় প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা করিমকে শাস্তিমুলক বদলীর দাবি জানান উপস্থিত সদস্যরা। পিআইও করিমের বিরুদ্ধে অনৈতিক আচারণসহ কাজ না করে টিআর কাবিখা ও ৪০ দিনের কর্মসৃজনের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এসএমএ করিম বলেন, আমার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সঠিক না। এটা একটা সিন্ডিকেট। বিষয়টি আমি ডিজি মহোদয়কে অবহিত করবো। কেনো ওরা আমাকে পছন্দ করছে না ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না।

শেয়ার