যশোরে শিশু তৃষা ধর্ষণের পর হত্যা ।। প্রধান অভিযুক্ত মেহেদী হাসান শক্তির আদালতে আত্মসমর্পণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর শহরতলীর ধর্মতলা এলাকার আলোচিত শিশু তৃষা আফরিন কথা হত্যা মামলার প্রধান অভিযুক্ত আসামি মেহেদী হাসান শক্তি আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন। রোববার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গৌতম মল্লিক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। আসামি শক্তি শহরতলীর খোলাডাঙ্গা গ্রামের কামরুজ্জামান কামের ছেলে।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, নড়াইলের তরিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি যশোর শহরতলীর ধর্মতলা এলাকায় বাসা ভাড়া করে ইজিবাইক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তার মেয়ে শিশু তৃষা আফরিন কথা গত ৩ মার্চ বিকেলে আরবি পড়ে এসে বাসার পাশে খেলা করছিল। এরপর রহস্যজনকভাবে সে নিখোঁজ হয়। পরদিন বাড়ির পিছনের ডোবায় বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ এ মামলায় সাইফুল ইসলাম নামে একজনকে আটকের পর বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেয়। ওই শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় বলে পুলিশকে জানায়। এরপর আরেক আসামি শামিম ক্রসফায়ারে নিহত হয়। কিন্তু এ ঘটনার অন্যতম আসামি মেহেদী হাসান শক্তি এতদিন পলাতক থাকায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি। সম্প্রতি তিনি পুলিশি গ্রেপ্তার এড়াতে গতকাল রোববার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের জন্য আবেদন করেন। বিচারক তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন।

শেয়ার