আবু সালেহ তোতার স্মরণসভায় বক্তারা
যশোরে সাংস্কৃতিক আন্দোলনে তাঁর অংশগ্রহণ ছিলো চোখে পড়ার মতো

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের নন্দিত সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আবু সালেহ তোতার ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় আবু সালেহ তোতার মৃত্যুবার্ষিকী কমিটির আয়োজনে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহমুদ হাসান বুলুর পরিচালনায় সভাপতিত্ব করেন অ্যাডভোকেট শহীদ আনোয়ার। বক্তব্য রাখেন, সাবেক সংসদ সদস্য মনিরুল ইসলাম মনির, ওয়াকার্স পার্টির পলিট বুরে‌্যা সদস্য ইকবাল কবির জাহিদ, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ যশোর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য, আবু সালেহ তোতার ছেলে আবু শাহরিয়ার মিতুল, বাসদ মার্কসবাদী সমন্বয়ক কমরেড হাসিনুর রহমান, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হারুন অর রশিদ, শহীদ বিপ্লবী স্মৃতি কমিটির সচিব মোস্তাফিজুর রহমান কাবুল, নান্নু চৌধুরী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট সদস্য গোলাম ফারুক লিটন, বাঁচতে শেখার নির্বাহী পরিচালক আঞ্জেলা গমেজ, জয়তী সোসাইটি পরিচালক অর্চনা বিশ্বাস, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাধারণ সম্পাদক অশোক রায়।
বক্তরা আবু সালেহ তোতার স্মৃতিচারণ করে বলেন, নাগরিক সংস্কৃতিতে যশোর চিরকালই অগ্রণী। এমন একটি জেলার অগ্রণী সংস্কৃতিজন ছিলেন মরহুম আবু সালেহ তোতা। সামাজিক ক্ষেত্রেও তার অবদান ছিলো চোখে পড়ার মতো। এমন একজন উদার, রুচিবান ও বন্ধুবৎসল মানুষকে অকালে হারিয়ে আজ যশোরবাসী স্তব্ধ। যশোরে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আন্দোলনে আবু সালেহ তোতার অংশগ্রহণ ছিলো চোখে পড়ার মতো। সাংস্কৃতিক অঙ্গনের নেতাদের তার আর্দশ ধারণ করে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সাংস্কৃতিক ঐক্য শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে আহ্বান জানানো হয়।

শেয়ার