শার্শায় গৃহবধূ গণধর্ষণ মামলা ।। কারাবন্দি তিন আসামি দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ শার্শার আলোচিত গৃহবধূ গণধর্ষণ মামলায় কারাবন্দি তিন আসামিকে দ্বিতীয় দফায় আরো দুইদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সাইফুদ্দিন হোসাইন এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামিরা হলো, শার্শা উপজেলার লক্ষণপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে আব্দুল কাদের, আব্দুল মাজেদের ছেলে আব্দুল লতিফ ও চটকাপেতা গ্রামের মৃত হামিজ উদ্দিনের ছেলে কামরুজ্জামান কামরুল। একই মামলায় গত ৮ সেপ্টেম্বর এই ৩ আসামিকে তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।
মামলার বিবরণ মতে, একটি মাদক মামলায় ওই গৃহবধূর স্বামী কারাগারে আটক আছেন। গোড়পাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই খাইরুল ইসলাম পরিচয় দিয়ে গত ২ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে ঘরের দরজা খুলতে বলেন। দরজা খোলার পরে পরিচয়ধারী খাইরুলসহ কয়েকজনে ঘরে ঢুকে তার স্বামীর মামলা হালকা করে দেয়ার কথা বলে ওই গৃহবধূর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় তারা কয়েকজনে ওই গৃহবধূকে চোখ-মুখ বেধে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। অসুস্থ্য অবস্থায় পরদিন ওই গৃহবধূ নিজেই যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাসহ ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে যান। এসময় বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে অবহিত করে। পরে পুলিশের কাছে ওই গৃহবধূ খায়রুল দারোগাসহ আটক তিনজনের নাম উল্লেখ করেন। পরবর্তীতে এ ঘটনায় শার্শা থানায় গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত ওই তিনজনকে আটক করে। প্রত্যেককে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করলে গত ৮ সেপ্টেম্বর বিচারক ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
১৬ সেপ্টেম্বর তদন্ত কর্মকর্তা তিনজনকে আরো তিনদিন করে রিমান্ডের আদালতে আবেদন করেন। বিচারক মঙ্গলবার তাদের ২ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শেয়ার