প্রতারণা ও টাকা চুরির অভিযোগে যশোরে হিজড়ার নামে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে তৃতীয় লিঙ্গ পরিচয় গোপন রেখে একজন পুরুষের সাথে বিয়ে ও টাকাসহ স্বর্ণালংকার চুরির অভিযোগে মামলা হয়েছে। মামলায় নব বিবাহিতা সেই তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তিসহ ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। মঙ্গলবার মণিরামপুর উপজেলার হানুয়ার গ্রামের লাভলুর রহমান যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা করেন। বিচারক মো. মঞ্জুরুল ইসলাম মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) যশোরকে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ দিয়েছেন। অভিযুক্ত আসামিরা হলো, যশোর সদর উপজেলার মাহিদিয়া গ্রামের মার্জিয়া সুলতানা, তার পিতা লতিফ সরদার, ভাই মিঠু ও রাসেল সরদার এবং লতিফ সরদারের ভাই রশিদ সরদার।
মামলা সূত্র মতে, মার্জিয়া সুলতানার সাথে গত ১১ মার্চ বিকেল ৩টার দিকে লাভলুর রহমানের সাথে পারিবারিকভাবে এক লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে হয়। ওইদিন বাসর রাতে বাদী লাভলুর রহমান জানতে পারেন মার্জিয়া সুলতানা তৃতীয় লিঙ্গের বা হিজড়া। ওই রাতেই বিষয়টি কাউকে জানানো হলে মার্জিয়া আত্মহত্যা করবে বলে হুমকি দেয়। পরবর্তীতে এ বিষয় নিয়ে মার্জিয়ার পরিবারের লোকজনের সাথে আলোচনা করা হলে তারা কোন জবাব দিতে পারেনি। কয়েকদিন পর বাদীর অনুপস্থিতিতে ঘরে থাকা ২ লাখ ৭০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার ও নগদ এক লাখ টাকা চুরি করে পিতার বাড়ি পালিয়ে চলে যায়। এরপর বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে শালিস মিমাংসায় ব্যর্থ হয়ে আদালতে এ মামলা করা হয়েছে। বিচারক আগামী ১২ নভেম্বর তারিখের মধ্যে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য যশোরের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে আদেশ দিয়েছেন।

শেয়ার