যশোর থেকে চুরি হওয়া কাভার্ডভ্যান কুষ্টিয়া থেকে উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর থেকে চুরি হওয়া ঢাকা ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্টো-ট ২২-৭৪৭৫) কুষ্টিয়ার লালনসেতু থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনার সাথে জাড়িত অভিযোগে হেলপার রইচ মিয়াকে আটক করা হয়েছে। তিনি যশোর সদর উপজেলার হাশিমপুর গ্রামের মোহাম্মদ রফিকের ছেলে।
ঢাকা ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির যশোর ব্রাঞ্চের ম্যানেজার ফরিদুল ইসলাম এ ব্যাপারে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন।
মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, যশোর সদর উপজেলার হাশিমপুর গ্রামের জবেদ আলীর ছেলে ইমরান হোসেন ওই কাভার্ডভ্যানের চালক। আর হেলপারি করতেন রইচ। গত ৮ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার দিকে কাভার্ডভ্যানটি ঢাকা থেকে যশোরে আসে। ৯ সেপ্টেম্বর খুলনায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে চালক গাড়িটি যশোরের-মাগুরা মহাসড়কের কিসমত নওয়াপাড়া এলাকার জবেদ মটরসের গ্যারেজের সামনে রেখে বাড়িতে যান। যাওয়ার সময় চাবি হেলপার রইচকে গাড়ির চাবি দিয়ে ভিতরে থাকতে বলেন। ১০ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টার দিকে চালক গ্যারেজের সামনে এসে দেখেন গাড়িটি নেই। এরপর হেলপার রইচের মোবাইল ফোন বন্ধ পান চালক। বিষয়টি চালক ম্যানেজার ফরিদুল ইসলামকে জানায়। তিনি এবিষয়ে ঢাকায় কথা বলে কোতোয়ালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন।
উপশহর পুলিশ ক্যাম্পে ইনচার্জ এসআই ফারুক হোসেন জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে সংবাদ পেয়ে কুষ্টিয়ার লালন শাহের সেতুর কাছ থেকে কাভার্ড ভ্যানটি জব্দ করা হয়েছে। একই সাথে হেলপার রইচকে আটক করা হয়েছে। রইচের সাথে আর কেউ ছিল কি-না তা জানা যায়নি। রইচ গাড়িটি নিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

শেয়ার