খুলনায় সন্ত্রাসী হামলায় বাবার পর ছেলেরও মৃত্যু

সমাজের কথা ডেস্ক॥ খুলনার শিরোমণি এলাকায় বাবা ও ছেলেকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে বাঁশ বোঝাই ট্রাক ছিনতাইয়ের ঘটনায় বাবা শমসের মন্ডলের পর মারা গেলেন ছেলে মো. রোকন মন্ডল। রাজধানীর একটি হাসপাতালে ৫ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে শনিবার সকালে মারা যান তিনি।
নিহতের ভাই মো. সুমন মন্ডল জানান, গত ২ সেপ্টেম্বর ভোরে খুলনার খানজাহান আলী থানার শিরোমণি পশ্চিমপাড়া চিংড়ীখালী বাইপাস মহাসড়কে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে তার বাবা শমসের মন্ডলকে হত্যা ও ভাই রোকন মন্ডলকে গুরুতর জখম করে ট্রাক চালক হ্যাপি পালিয়ে যায়।
গুরুতর আহত রোকনকে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি দেখা হলে রাতেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। ঢাকা মেডিকেলে ৪ ঘণ্টা রাখার পর ৩ সেপ্টেম্বর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য উত্তরা ১০নং সেক্টরে আইসি হাসপাতালে ভর্তি করে। ৫ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে শনিবার সকাল ৬টায় তার মৃত্যু হয়।
শমসের মন্ডলের হত্যার ঘটনায় খানজাহান আলী থানায় তার স্ত্রী বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৪ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এছাড়া গুরুতর জখম রোকন মন্ডলের মৃত্যু হওয়ায় আড়ংঘাটা থানায় আরও একটি মামলা করবেন বলে নিহতের ভাই সুমন মন্ডল জানান।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আড়ংঘাটা থানা পুলিশের অফিসার্স ইনচার্জ মো. রেজাউল করিম বলেন, এ ব্যপারে আডংঘাটা থানায় পৃথক আরও একটি মামলা হবে।
উল্লেখ্য, গত ২ সেপ্টেম্বর ভোরে বাশঁ ব্যবসায়ী ও ট্রাক মালিককে হত্যা ও তার ছেলে মো. রোকন মন্ডলকে (৩৮) গুরুতর জখম করে বাঁশ ভর্তি ট্রাক নিয়ে চালক মো. রফিকুল ইসলাম হ্যাপি পালিয়ে যায়।

SHARE