বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে প্রাণ ফিরেছে শামস্-উল-হুদা স্টেডিয়ামের

প্রতিদিনই দর্শকে ভরে যাচ্ছে গ্যালারি
উপশহরকে পরাজিত করেছে রামনগর

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নির্বাচন জটিলতায় যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় কোন খেলা না থাকায় প্রাণ হারিয়েছিল শামস্-উল-হুদা স্টেডিয়াম। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের (অনূর্ধ্ব-১৭) যশোর সদর উপজেলা পর্যায়ের খেলায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে স্টেডিয়ামটি। প্রতিদিনই দর্শকে ভরে যাচ্ছে স্টেডিয়ামের আমেনা খাতুন ভিআইপি ক্রিকেট গ্যালারি। শুক্রবার রামনগর থেকে বাস ভর্তি দর্শক এসে পুরো সময়টা মাতিয়ে রাখে। দর্শকদের হতাশও করেনি রামনগর ইউনিয়রের কিশোরা। সদর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনের অনুষ্ঠিত খেলায় সাডেন ডেথে উপশহর ইউনিয়নকে পরাজিত করেছে তারা।
নির্ধারিত সময়ের খেলা ২-২ গোলে সমতায় শেষ হয়। টাইব্রেকারে পেনাল্টি শ্যূট ছিল ৪-৪ গোল। সাডেন ডেথে ১-০ তে জয় পায় রামনগর ইউনিয়ন।
খেলার ১৪ মিনিটে আল শাহারিয়ারের গোলে এগিয়ে যায় রামনগর ইউনিয়ন। তবে বেশি সময় এই লিড ধরে রাখতে পারেনি রামনগর ইউনিয়ন। ২২ মিনিটে হাসিব হোসেনের গোলে সমতায় ফিরে আসে উপশহর। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে তানভীর হোসেনের গোলে ২-১ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রামনগর ইউনিয়ন।
বিরতি থেকে ফিরে এসে প্রথম গোলে সুযোগ পেয়েছিল রামনগর। তবে তা থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয় টুটুল। এই গোল মিসের পর দাঁড়িয়ে যায় রামনগরের খেলোয়াড়রা। আর এই সুযোগে ৫৩ মিনিটে আবারও হাসিব হোসেনের গোলে ২-২ সমতা নিয়ে আসে উপশহর ইউনিয়ন। ম্যাচে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন রামনগর ইউনিয়নের টুটুল হোসেন। জাবির হোটেল ইন্টারন্যাশনালের পক্ষে থেকে সেরা খেলোয়াড়ের হাতে পুরস্কার তুলে দেন যশোর পৌরসভার কাউন্সিলর মুস্তাফিজুর রহমান মুস্তা। এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির সদস্য এসএম মাহমুদ হাসান বিপু, জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য ও উপশহর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এহসানুর রহমান লিটু, রামনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজনীন নাহার আলমগীর, টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির সদস্য এবিএম আখতারুজ্জামান, হালিম রেজা প্রমুখ।

SHARE