নাগরিক কমিটির মানববন্ধন থেকে পানি অপসারণে আলটিমেটাম

আব্দুল জলিল, সাতক্ষীরা ॥ অতিবর্ষণে ডুবে গেছে সাতক্ষীরার নিম্নাঞ্চল। ভরাট হয়ে যাওয়া নদ-নদী খাল ও নালার পানি প্রবাহ সচল না থাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে বিস্তৃর্ণ অঞ্চল জুড়ে। বৃষ্টির পানি বের হতে না পারায় তা ছাপিয়ে পড়ছে গ্রামে পাড়ায় বসত বাড়িতে। এ ছাড়া অপরিকল্পিত চিংড়ি চাষ করতে ইচ্ছা মতো বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি প্রবাহ আটকে রাখায় পরিস্থিতি আরও জটিল আকার ধারণ করেছে। নাগরিক কমিটির পক্ষ থেকে পানি অপসারণে এক সপ্তাহের আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছে।
জলাবদ্ধতার এই সমস্যা তুলে ধরে তা সমাধানের দাবিতে জেলা নাগরিক কমিটি বুধবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ আনিসুর রহিমের সভাপতিত্বে বক্তারা অবিলম্বে পানি সরানোর জন্য জেলা প্রশাসনের কাছে দাবি জানান।
তারা বলেন, সাতক্ষীরার সব উপজেলার বেশিরভাগ গ্রামের মানুষের বাড়িঘর ফসলী ক্ষেত এখন পানির নিচে। তাদের বাড়িতে বাড়িতে পানি উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, পানির কারণে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে। জেলা প্রশাসন পানি নিষ্কাশনের পরিকল্পনা হাতে নিলেও এখনও তা সুফল দেয়নি। ফলে প্রতিদিনের বৃষ্টির সাথে সাথে পানির মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় জনজীবন আরও বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। মাছ চাষের জন্য দেয়া বেড়িবাঁধ পানি অপসারণে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে উল্লেখ করেন তারা।
জরুরি ভিত্তিতে পানি অপসারণের দাবিতে সাতক্ষীরায় এক সপ্তাহের আলটিমেটাম দিয়ে তারা বলেন, এরমধ্যে খাল নদী থেকে নেট পাটা তুলে দিয়ে অবৈধ বেড়িবাঁধ কেটে পানি নিষ্কাশন না করা হলে জনগণ বৈধ ও অবৈধ বেড়িবাঁধ কেটে দিতে বাধ্য হবে। এমন অবস্থায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হবারও আশংকা রয়েছে। বর্তমান সময়ে এডিস মশার জন্ম সাতক্ষীরায় ডেঙ্গুজ¦রের প্রাদুর্ভাব ঘটাচ্ছে জানিয়ে তারা বলেন, জলাবদ্ধতার কারণে এই শংকা আরও বেড়ে যাচ্ছে। মানুষ আতংকিত হয়ে পড়েছে। বক্তারা জেলার মানুষের প্রাণের দাবি ২১ দফা বাস্তবায়নের জন্য জেলা প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ আবদুল হামিদ, প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, নাগরিক কমিটির সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, সাবেক পিপি অ্যাডভোকেট সৈয়দ ইফতেখার আলি, জাপা নেতা আশরাফুজ্জামান আশু অ্যাডভোকেট আজাদ হোসেন বেলাল, প্রেসক্লাব সহসভাপতি অধ্যক্ষ আশেক ই এলাহি, প্রেসক্লাব সেক্রেটারি মমতাজ আহমেদ বাপী, সাবেক সেক্রেটারি আবদুল বারী, সাবেক সেক্রেটারি এম কামরুজ্জামান, প্রেসক্লাব নির্বাহী কমিটির সদস্য সেলিম রেজা মুকুল, উন্নয়নকর্মী মাধব চন্দ্র দত্ত, উন্নয়নকর্মী অপরেশ পাল, জাপা নেতা আনোয়ার জাহিদ তপন,জেলা পরিষদ সদস্য শাহনাজ পারভিন মিলি, মহিলা পরিষদ সম্পাদক জোসনা দত্ত, সিপিবির আবুল হোসেন, বাসদ নেতা নিত্যানন্দ সরকার, অ্যাডভোকেট আল মাহমুদ পলাশ,নাগরিক কমিটির নেতা আলী নুর খান বাবুল প্রমূখ।

SHARE