যশোরে বখাটেদের অত্যাচারে স্কুলে যেতে পারছে না স্কুল ছাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে বখাটেদের অত্যাচারে স্কুলে যেতে পারছে না নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। এর প্রতিবাদ করায় বখাটেরা বাড়িতে এসে মেয়েকে জোর পূর্বক অপহরণের চেষ্টা করে। এতে বাধা দেয়ায় মেয়ের পিতা ও চাচাকে মারপিটের পর মোটরসাইকেল ভাংচুর করে অর্ধ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করে। এব্যাপারে মেয়ের পিতা বাদী হয়ে ৫ জনের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার কোতোয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযুক্তরা হলো, সদর উপজেলার চুড়ামনকাঠি গ্রামের মোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান রুনু, ঝাউদিয়া গ্রামের মৃত ফজের আলী সরদারের ছেলে মেহের আলী, রবিউল ইসলামের ছেলে নাছিম, বাদিয়াটোলা গ্রামের জবেদ আলীর ছেলে ইলিয়াছ হোসেন ও বাবর আলী বাবুর ছেলে শাওন।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, তার মেয়ে সদর উপজেলার ঝাউদিয়া মেহেরুল্লাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। ৬/৭ মাস পূর্ব হতে একই গ্রামের মেহেদী হাসান রুনু মেয়েটিকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে বিভিন্ন ধরনের কু-প্রস্তাব দেয়। রাজি না হলে অপহরণসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয়। বিষয়টি রুনুর অভিভাবকদের জানানো হলে তারা কোন কর্নপাত করেনি।
গত ২৮ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে সকল আসামি ওই মেয়ের বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের খারাপ আচারণ করে এবং অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতে প্রতিবাদ করায় তার পিতাকে মারপিট করে। এরপর খবর পেয়ে মেয়ের চাচা সেখানে আসেন। তাকেও খুন করার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চেষ্টা করে। এসময় তার চাচা দৌড়ে পালিানোর চেষ্টা করে। এই সুযোগে তারা মেয়ের চাচার পালসার মোটরসাইকেলটি এলোপাতাড়ি কুপিয়ে অর্ধ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করে।

শেয়ার