বিচার দাবির মধ্য দিয়ে রানার সম্পাদক মুকুলের ২১তম হত্যাবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের দৈনিক রানার সম্পাদক শহীদ সাংবাদিক আরএম সাইফুল আলম মুকুলের ২১তম হত্যাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে সাংবাদিক সংগঠনগুলোর উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচিতে দিবসটি পালন করা হয়।
এসব কর্মসূচি থেকে যশোরের দুই শহীদ সাংবাদিক শামছুর রহমান কেবল ও সাইফুল আলম মুকুল হত্যাকা-ের বিচার প্রক্রিয়ার অচলাবস্থার নিরসন ঘটাতে যশোরের সব সংগঠনের সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের প্রস্তাব তুলে ধরা হয়। সেপ্টেম্বরেই এ পদক্ষেপের জন্য আলোচনা ও কমিটি গঠনেরও প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।
সাইফুল আলম মুকুলের ২১তম হত্যাবার্ষিকীর কর্মসূচির মধ্যে ছিল কালো ব্যাচ ধারণ, স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ, আলোচনা ও দোয়া মাহফিল। সকালে শহরের বেজপাড়ায় সাংবাদিক সাইফুল আলম মুকুলের স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পস্তবক অর্পন করে শ্রদ্ধা জানান সাংবাদিকরা। এসময় প্রেসক্লাব যশোর, যশোর সংবাদপত্র পরিষদ, যশোর সাংাবাদিক ইউনিয়ন (জেইউজে), সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোর, যশোর জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন, ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, দৈনিক স্পন্দন ও দৈনিক প্রতিদিনের কথার সাংবাদিকবৃন্দ পুস্পস্তবক অর্পন করেন। এছাড়াও স্থানীয় সামাজিক সংগঠন ফ্রেন্ডস ক্লাব-এর সদস্যবৃন্দ স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পস্তবক অর্পন করে।
শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন শেষে প্রেসক্লাবে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল হয়। এতে প্রেসক্লাবের সদস্যসহ সাংবাদিকবৃন্দ অংশ নেন। সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের আয়োজেনে স্মরণসভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি শহিদ জয়। বক্তব্য দেন প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, শহীদ সাংবাদিকের সহধর্মিনী হাফিজা আক্তার শিরিন, লোকসমাজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আনোয়ারুল কবির নান্টু, সংবাদপত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, প্রতিদিনের কথার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, দৈনিক স্পন্দনের নির্বাহী সম্পাদক মাহবুব আলম লাভলু, সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সাবেক সভাপতি নূর ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক নেতা তৌহিদ জামান।
সকালে যশোর জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন শেখ দিনু আহমেদ। এ অনুষ্ঠানে প্রেসক্লাবের সদস্যসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
ফ্রেন্ডস ক্লাব যশোরের উদ্যোগে শহীদ সাংবাদিক আরএম সাইফুল আলম মুকুলের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অপর্ণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফ্রেন্ডস ক্লাব যশোরের সভাপতি মাহমুদ এলাহী মানু, সাধারণ সম্পাদক কাজী আশরাফুল আজাদ, সিনিয়র সহসভাপতি রকিবুল ইসলাম ছিটন মোল্লা, এরশাদুল হক মিকু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন, রবিউল ইসলাম মিঠুন, ইমরান কবির প্রমুখ। পরে স্মৃতি স্তম্ভে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সভাপতি মাহমুদ এলালী মানু ও সাধারণ সম্পাদক কাজী আশরাফুল আজাদ। সকল কর্মসূচি থেকে সম্পাদক মুকুল হত্যার দ্রুত বিচার দাবি করা হয়।
উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালের ৩০ আগস্ট রাতে রানার সম্পাদক সাইফুল আলম মুকুল শহর থেকে বেজপাড়ার নিজ বাসভবনে যাওয়ার পথে চারখাম্বার অদূরে দুর্বৃত্তদের বোমা হামলায় নিহত হন। পরদিন নিহতের স্ত্রী হাফিজা আক্তার শিরিন কারো নাম উল্লেখ না করে কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

শেয়ার