আফগান টেস্টকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের প্রস্তুতি মনে করছেন মুমিনুল

সমাজের কথা ডেস্ক॥ শুরু হয়ে গেছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ডের পর বৃহস্পতিবার এই প্রতিযোগিতায় নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ভারত। বাংলাদেশকে অপেক্ষা করতে হবে আরও প্রায় তিন মাসের মতো। নভেম্বরে ভারতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবেন সাকিব আল হাসানরা। এর আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টকে এই চ্যাম্পিয়নশিপের প্রস্তুতি হিসেবে দেখছেন মুমিনুল হক। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথমবার টেস্টে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। স্বাগতিক হওয়ায় এই ম্যাচে ফেভারিট তারাই। তাছাড়া র‌্যাংকিংয়েও দুই দলের মধ্যে রয়েছে তফাত। কিন্তু আফগানদের কোনোভাবে খাটো করে দেখছেন না মুমিনুল। তাছাড়া বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আগে এই ম্যাচ আত্মবিশ্বাসের জ্বালানি হতে পারে বিশ্বাস তার। বৃহস্পতিবার মিরপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মুমিনুল বলেছেন, ‘বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলা হবে আমাদের জন্য ভালো একটা প্রস্তুতি। আমাদের সবার জন্যই দারুণ সুযোগ। ভারতের ম্যাচের আগে আফগানদের স্পিন আক্রমণ সামলানোয় আমাদের ব্যাটস্যানদের ভালো প্রস্তুতি হবে। সবাই জানে, তাদের স্পিন আক্রমণ কতটা ভয়ঙ্কর।’ ২০২১ সাল পর্যন্ত হতে যাওয়া এই চ্যাম্পিয়নশিপে ১৪ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। দুই বছরে এত বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে তারা, এটা ভেবে উচ্ছ্বসিত মুমিনুল, ‘টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু হওয়ায় দেশের জন্য ভালো হয়েছে। দেশের ক্রিকেটের জন্য এটা খুব ভালো। ব্যক্তিগতভাবে আমি খুব খুশি, কেন না টেস্ট ক্রিকেট আমাদের দেশে সেভাবে ফোকাস হয় না। এখন বেশি বেশি টেস্ট খেলার সুযোগ আসবে।’ কেবল টেস্ট খেলার কারণে জাতীয় দলে সচরাচর দেখা যায় না মুমিনুলকে। গত মার্চে নিউজিল্যান্ড সফরে শেষবার দেখা যায় তাকে। প্রায় ৬ মাস পর আফগানিস্তানের বিপক্ষে আবারও হয়তো খেলার সুযোগ পাবেন তিনি। লম্বা বিরতিতে মনোযোগে ব্যঘাত ঘটে কিনা প্রশ্নে এই ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘এসব ক্ষেত্রে মানসিকভাবে অনেক শক্ত হতে হয়। শারীরিকভাবেও সামর্থ্যবান হতে হয়। আশা করি আমার তেমন কোনও সমস্যা হবে না। এটায় আমি অভ্যস্ত হয়ে গেছি। কয়েক দিন আগে ভারতে আমি তিন-চারটা চারদিনের ম্যাচ খেলেছি। খেলার মধ্যে থাকলে পারফর্ম করা সহজ হয়। আসলে এসব ব্যাপার কঠিনভাবে নিলে কঠিন, সহজভাবে নিলে সহজ।’

SHARE