এমপি পরিচয় দিয়ে ডিআইজিকে ফোন, রঙ মিস্ত্রি কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নিজেকে সংসদ সদস্য পরিচয় দিয়ে খুলনার রেঞ্জ ডিআইজিকে ফোন করে এক দারোগাকে বদলির সুপারিশ করার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন মাহমুদ ইসলাম রকি নামে এক প্রতারক। বুধবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক গৌতম মল্লিক জবানবন্দি শেষে তাকে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। মাহমুদ ইসলাম রকি যশোর শহরের কিসমত নওয়াপাড়ার প্রফেসর মিজানুর রহমানের বাড়ির ভাড়াটিয়া এবং মাগুরার শালিখা উপজেলার বুনাগাতি গ্রামের মৃত নজরুল ইসলাম বিশ্বাসের ছেলে। এব্যাপারে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের এসআই শামীম হোসেন বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন।
রকি জানিয়েছে, তিনি পেশায় রঙ মিস্ত্রির কাজ করেন। মাগুরার মোহাম্মদপুর ও শালিখা থানায় তার নামে দুইটি মামলা রয়েছে। ওই মামলায় শালিখা থানার এএসআই বাশার তাকে আটকের জন্য বাড়িতে অভিযান চালায়। তার মা ও স্ত্রীকে হুমকি দিয়েছে এএসআই বাসার। সে কারণে গত ১৪ আগস্ট রাত আড়াইটার দিকে ৯৯৯ নম্বরে রিং করে খুলনা রেঞ্জ ডিআইজির মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে। এরপর ওই রাতেই মাহমুদ ইসলাম রকি নিজেকে বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সারাহ নাসের তন্ময় পরিচয় দিয়ে ডিআইজিকে রিং করে। রিসিভ না করলে সর্ট মেসেজ দেয় রকি। পরে রেঞ্জ ডিআইজি রকিকে রিং করে তার বিষয়ে জানতে চান। এসময় এএসআই বাসারকে মাগুরা থেকে বদলি করে বাগেরহাট আনার জন্য বলেন। গতকাল বুধবার যশোরের কিসমত নওয়াপাড়ার বাসা থেকে ডিবি পুলিশ তাকে আটক করে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই অরুন কুমার দাস এদিনই আদালতে সোপর্দ করেন। রকি আদালতে স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করে।

SHARE