যশোরে দুর্বৃত্তদের হামলায় কৃষক নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর সদর উপজেলার সালতা গ্রামে বুধবার মধ্যরাতে রাতে দুর্বৃত্তদের হামলায় মনিরুল ইসলাম মোল্যা মিনারুল (৩২) নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। তিনি ওই গ্রামের মৃত সদর আলী মোল্যার ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ বাবু নামে তার এক বন্ধুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়েছে। এব্যাপারে নিহতের ভাই আক্তারুজ্জামান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন। আটক বাবু একই গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে।
নিহত মিনারুলের স্ত্রী বিথি খাতুন জানিয়েছেন, মিনারুল বুধবার রাত ১০টার দিকে বাড়িতে গরুর জন্য বিচালি কাটছিলেন। কাটা শেষে বাকি থাকা দুই আটি বিছালি গাদায় রাখতে যান। এরই মধ্যে স্ত্রী বিথি বাথ রুমে যান। সেখান থেকে বেরিয়ে আর স্বামীর দেখা পাননি। তিনি খোঁজখবর নিতে থাকেন। কোথাও না পেয়ে মিনারুলের ভাইসহ প্রতিবেশিদের জানান। তার ভাই ও গ্রামবাসী একযোগে মিনারুলকে খুঁজতে থাকেন। রাত ১১টার দিকে বাড়ির পাশে ইসমাইলের বাগানের ভেতরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে দেখতে পান। তার ঘাড়ে ও কপালে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন ছিল। পরে তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে রাত ১টার দিকে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
নিহতের বড় ভাই আক্তারুজ্জামান জানিয়েছেন, মিনারুল নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ শুনে তিনিসহ গ্রামবাসী খোঁজ করতে থাকেন। পরে বাড়ির পাশে একটি বাগানে তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় দেখতে পান। তিনি আরো জানিয়েছেন, মিনারুল নিরীহ প্রকৃতির মানুষ ছিল। মাঠে শ্রম দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতো। তারে সাথে কারোর কোন বিরোধ নেই।
কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) সমীর কুমার সরকার জানিয়েছেন, মিনারুল নিরীহ মানুষ হিসেবেই এলাকায় পরিচিত। কি কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা উদঘাটনে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় তার ভাই আক্তারুজ্জামান বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে মামলা করেছেন। এ মামলায় বাবু নামে তার এক বন্ধুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হলেও তিনি অস্বীকার করেছেন।

শেয়ার