কয়রায় কোরবানির পশুর হাটে মাঝারি সাইজের গরুর চাহিদা বেশি

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥ আগামীকাল ঈদ। তাই ঈদকে সামনে রেখে শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে উপকুলীয় অঞ্চল খুলনার কয়রার পশুর হাটগুলো। প্রতিটি হাটে এখন ক্রেতা বিক্রেতার ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এবার উপজেলার বিভিন্ন পশুরহাটে ভারতীয় গরুর আমদানি না থাকলেও দেশি গরুর আমদানি রয়েছে পযাপ্ত পরিমানে। সেই সাথে পশুর দাম নিয়েও ক্রেতা-বিক্রেতাদের মাঝে রয়েছে চরম দ্বিমত। পশুর খাদ্য সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধির কারণ দেখিয়ে বাড়িতে পশুপালন করা কৃষকরা তাদের পশুর দাম হাঁকালেও ক্রেতারা সেটাকে মনে করছেন অনেক বেশি। এদিকে পশু ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন হাটে দেশীয় প্রজাতির গরু স্বাচ্ছন্দ্যে ক্রয় করতে পারায় তারা রয়েছে বেশ স্বস্তিতে। ১নং কয়রা গ্রামের আরিফুল হোসেন ডালিম বলেন, এবছর স্থানীয় বাজারে গরুর দাম অনেক বেশি। তারপরও গত বৃহস্পতিবার দেউলিয়ার হাট থেকে ৬২ হাজার টাকা দিয়ে মাঝারি সাইজের দেশী গরু কিনতে পারায় আমি খুশি অনুভব করছি। তবে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের পশু পালনকারীরা তাদের পালন করা উন্নত জাতের গরু নিজ এলাকায় বিক্রি না করে বেশি লাভের আশায় পাশ্ববর্তি উপজেলার বিভিন্ন হাটে বাজারে বিক্রয়ের জন্য নিয়ে যাচ্ছেন। উপজেলার মহারাজপুর গ্রামের আবুল কালাম গাজী জানান, তিনি ৬টি উন্নত জাতের গরু পালন করেছেন। ইতিমধ্যে স্থানীয় পশুর হাটে ভাল দামে বিক্রিও করেছি। অন্য দুইটি বিক্রির চেষ্টা করছি।

SHARE