কালীগঞ্জের বারবাজারে পর্যটন কেন্দ্র ও যাদুঘর প্রতিষ্ঠার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালীগঞ্জ ॥ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বারবাজারের প্রাচীন প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শন স্থানে পর্যটন কেন্দ্র ও যাদুঘর প্রতিষ্ঠার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে শহরের হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ন্ডের সেমিনার কক্ষে ‘বারবাজারের প্রাচীন ঐতিহ্য রক্ষা অন্দোলন ফেসবুক’ নামের একটি সংগঠন এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।
সংগঠনের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সনজিত কুমার দে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারের প্রতœতাত্ত্বিক বিভাগ বারবাজার এলাকায় প্রাচীন প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শন আবিস্কার করেছে। এখানে জোড় বাংলা মসজিদ, গলাকাটা মসজিদ, গোড়ার মসজিদ, ৬ গম্বুজ মসজিদ, পীরপুকুর মসজিদ, শাহী মহল, জাহাজঘাটা,গাজী-কালু চম্পাবতীর মাজারসহ ২২টি প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শন এবং ১৮টি ছোট-বড় দীঘি ও পুকুর রয়েছে। প্রায় ১০ বর্গ মাইল এলাকাজুড়ে রয়েছে বহু অজানা প্রতœ সম্পদে ভরপুর।
কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম জাহাঙ্গীর সিদ্দিক ঠান্ডুর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঝিনাইদহ-৪ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল আজীম আনার।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রুস্তম আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও বারবাজার ইতিহাস ঐহিত্যের লেখক রবিউল ইসলাম, বারবাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারি প্রধান শিক্ষক শেখ আব্দুর রশিদ, দৈনিক নবচিত্র পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম, প্রাক্তন সাংবাদিক বিশ্বাস আব্দুর রাজ্জাক, কালীগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি নয়ন খন্দকার প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলন প্রধান অতিথি এমপি আনার বলেন, বারবাজারের ইতিহাস-ঐতিহ্য রক্ষায় তিনি সদা প্রস্তুত। এখানে প্রতœতাত্ত্বিক যাদুঘর ও পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের দাবিটি তিনি জাতীয় সংসদে উত্থাপন করবেন এবং প্রতœতাত্ত্বিক অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলবেন।

SHARE