কুষ্টিয়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে এক নারীকে পিটুনি

সমাজের কথা ডেস্ক॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় ছেলে ধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারীকে গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয়রা।

দৌলতপুর থানার ওসি আজম খান জানান,উপজেলার শিতলাইপাড়া গ্রামে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত হাসিনা খাতুন (৬০) বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায়। তাকে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই নারীর মেয়ের জামাই রনি বলেন,তার শ্বাশুড়ি মানসিক ভারসাম্যহীন। গত রোজা ঈদের আগে শ্বাশুড়ি তার বাড়িতে বেড়াতে আসেন।

“তিনি বাড়ি থেকে বের হলে রাস্তা-ঘাট ঠিক চিনতে পারে না। আজ সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে বাইরে এসে পথ ভুলে যায়। এরপর স্থানীয়রা ছেলে ধরা সন্দেহে তাকে মারধর করেছে।”

ওসি বলেন, স্থানীয়রা ছেলে ধরা সন্দেহে এক নারীকে পিটিয়ে আহত করেছে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে এ ঘটনায় জড়িত কয়েকজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে এবং মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

শেয়ার