পুলিশে চাকরি দেয়ার নামে ৯ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে যশোরে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ পুলিশে চাকরি দেয়ার নাম করে ৯ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় যশোর কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। মাগুরার মোহাম্মদপুর উপজেলার ধুলজোড়া গ্রামের মন্টু সরকার মামলাটি করেন। আসামি করা হয়েছে যশোর সদর উপজেলার বিরামপুর গ্রামের ভোলা বিশ্বাসের ছেলে বিশ্বজিৎ বিশ্বাস (৪০)।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, মন্টু সরকারের আত্মীয় যশোরের বিশ্বজিৎ বিশ্বাস। তিনি ভোলা বিশ্বাসের ছেলে সজিব বিশ্বাসকে (১৯) পুলিশে চাকরি দেয়ার জন্য ফুসলাইতে থাকেন। ২০১৮ সালে সজিব মাগুরা পুলিশ লাইনে দাঁড়ায়। কিন্তু তার চাকরি হয় না। এই সংবাদ শুনে বিশ্বজিৎ বিশ্বাস বলেন টাকা ছাড়া চাকরি এমনি হয় না। আসামির প্রলোভন এবং চাকরি পাইয়ে দেয়ার নিশ্চয়তার কথা শুনে তিনি বিশ্বাস স্থাপন করেন এবং টাকা দিতে রাজি হন। গত বছরের ৫ জুলাই তিনি যশোরে এসে দুই লাখ টাকা তুলে দেন। এরপর বিভিন্ন সময়ে আরো ৭ লাখ মোট ৯ লাখ টাকা দেন ছেলের চাকরির জন্য।
গত ২৪ জুন মাগুরা পুলিশ লাইনে লোক নেয়ার সময় সজিব মাঠে যায়। কিন্তু তার উচ্চতা কম হওয়ায় চাকরি তো দূরে থাক মাঠ থেকে বের করে দেয় পুলিশ। তার চাকরি না হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়ায় সজিবের মা রাজলক্ষী সরকার যশোরের বিরামপুরে এসে বিশ্বজিতের কাছে টাকা ফেরৎ চান। কিন্তু বিশ্বাজিৎ আজ না কাল বলে ঘুরাতে থাকে। এক পর্যায়ে গত ২৮ জুন তার বাড়িতে গেলে টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে এবং কোন টাকা হবে না বলে জানিয়ে দেন। এই ঘটনার পর মন্টু সরকার বাদী হয়ে যশোর কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

SHARE