এইচএসসিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত নিপু ডাক্তার হতে পারবে?

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নিপু বিশ্বাস কি উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবে? ঋষি পরিবারের সন্তান নিপু বিশ্বাস এবার এইচএসসি পরীক্ষায় যশোর সরকারি এমএম কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। মোট ১৩শ’ নম্বরের মধ্যে নিপু পেয়েছে ১০৯৮ নম্বর।
এতো ভালো রেজাল্ট করেও তার সামনে ঘোর অন্ধকার। নিপুর পিতার নাম রণজিৎ বিশ্বাস। মাতার নাম সাগরিকা বিশ্বাস। বাড়ি যশোর সদরের কনেজপুর গ্রামে। ঋষি পরিবারের সন্তান নিপুর পিতা বাঁশের ঝুড়ি তৈরি করে সংসার চালান। প্রতিদিন তার আয় মাত্র ৩০০ টাকা। এই আয়ে পরিবারের ৪ জনের সংসার কোন রকম চলে। তাই বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নিপুকে বাড়তি যতœ নিয়ে পড়িয়েছেন। এসএসসি পরীক্ষায়ও সে জিপিএ-৫ পেয়েছিল। যশোর সদরের ডাকাতিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ওই পরীক্ষায় ১২শ’ নম্বরের মধ্যে নিপু পেয়েছিল ১১শ’ ৭৫ নম্বর।
ডাকাতিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হেলেনা আকতার বলেন, নিপুদের অভারের সংসার। আমাদের স্কুলে সে যখন পড়তো, তাকে তখন বিনামূল্যে আমরা খাতা কলম এবং অন্যান্য শিক্ষা উপকরণ সরবরাহ করেছি। এখন সে এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করেছে। কিন্তু উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে গেলে তার পরিবার কোন সাহায্য করতে পারবে না। নিপু বিশ্বাসের পিতা রণজিৎ বিশ্বাস বলেন, ছেলে ভালো ফল করেছে, এতে খুশি, কিন্তু উচ্চ শিক্ষা সে কিভাবে গ্রহণ করবে, তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছি। নিপুর মা সাগরিকা বিশ্বাস বলেন, তাদের মাঠে কোন জমি নেই। শুধু ভিটে টুকু আছে। স্বামী বাঁশের ঝুড়ি বুনে বাজারে বিক্রি করে যা আয় করেন, তা দিয়ে কোন রকম সংসার চালান। এখন নিপুর উচ্চ শিক্ষা কিভাবে হবে, তা নিয়ে তিনি চিন্তিত। নিপু জানান, ভবিষ্যতে সে ডাক্তার হতে চাই।

শেয়ার