কেশবপুরের বিল্লাল হত্যা মামলা ৪ জনকে অভিযুক্ত করে সিআইডির চার্জশিট

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ কেশবপুরের ভান্ডরখোলা গ্রামের বিল্লাল হোসেন হত্যা মামলার চার্জশিট দিয়েছে সিআইডি পুলিশ। চার জনকে অভিযুক্ত এবং আরো ছয়জনের অব্যাহতি চেয়ে সিআইডি পুলিশের এসআই লুৎফর রহমান আদালতে এ চার্জশিট দাখিল করেন।
অভিযুক্তরা হলো, ভান্ডরখোলা গ্রামের মতিয়ার রহমান গাজীর ছেলে হাসানুর রহমান, মোদাচ্ছের আলী সরদারের ছেলে আবু তাহের সরদার, আব্দুল মান্নান গাজীর ছেলে মাসুদ রানা ও হাড়িয়াঘোপ গ্রামের জোহর আলী বিশ্বাসের ছেলে ফয়সাল কবির।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, নিহত বিল্লাল হোসেন লেখাপড়ার পাশাপাশি ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। ২০১৬ সালের ২ জুলাই সন্ধ্যায় আসামি রানা মোবাইল করে বিল্লাল হোসেনকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর বিল্লাল আর বাড়ি ফেরেননি। পরদিন দুপুরে গোয়ালখালি মাঠের একটি কুমড়া ক্ষেত থেকে স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে বিল্লাল হোসেনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত বিল্লালের গায়ে একাধিক ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন ছিল।
এ ব্যাপারে নিহতের পিতা রেজওয়ান সরদার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে কেশবপুর থানায় মামলা করেন। প্রথমে থানা এবং পরে মামলাটি সিআইডি পুলিশ তদন্তের দায়িত্ব পায়। তদন্ত শেষে আটক আসামিদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই চারজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে এ চার্জশিট দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা। একই সাথে হত্যাকা-ে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আটক আব্দুর রহিম বাবু, রাসেল হোসেন মুন্না, আব্দুল হান্নান গাজী, আবজাল হোসেন, আব্দুল মান্নান গাজী ও জাকির হোসেনের অব্যাহতির আবেদন করা হয়েছে চার্জশিটে।

SHARE