মণিরামপুরে আড়াই কোটি টাকার সড়ক নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ

মোতাহার হোসেন, মণিরামপুর॥ যশোরের মণিরামপুরে আমেরিকান সংস্থা ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে সড়ক নির্মাণে নিন্মমানের ইট,বালু,খোয়া ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রকৌশলী অফিসকে ম্যানেজ করে উপজেলার ডুমুরখালি-গোয়ালবাড়িয়া সড়ক নির্মাণে মেসার্স বিশ্বজিৎ কন্সট্রাকশন নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান অনিয়ম-দুর্নীতি করছে। এ কাজে প্রায় ২ কোটি ৬৫ লাখ ৬২৪ টাকা ব্যয় হচ্ছে।
বাংলাদেশ কৃষি অবকাঠামো উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় সড়ক নির্মাণের কাজ বাস্তবায়ন করছে এলজিইডি (স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী বিভাগ)। যার দেখভাল করছে স্থানীয় প্রকৌশলী অফিস। অবশ্য জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী বললেন, কোন অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না।
জানাযায়, চলতি বছরের ৩ মে থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ শুরু হয়। যা চলতি বছরের ৩ ডিসেম্বরে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রকৌশলী অফিসকে ম্যানেজ করে রাস্তার কাজে নিন্মমানের ইট, বালু ও খোয়া ব্যবহার করা হচ্ছে।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সড়কে মাটি মিশ্রিত বালু দিয়ে বেস করে নিন্মমানের ইট দিয়ে এজিং করা হয়েছে। এরপর স্থানীয় নগর মাঠে ইটভাটা থেকে আনা ন্মিমানের ইট মেশিন দিয়ে খোয়া বানিয়ে পাঁচপোতা থেকে উত্তোলনকৃত বালুর সাথে মিশিয়ে সাববেস করা হচ্ছে।
উপজেলা প্রকৌশলী আবু সুফিয়ান দাবি করেন, সিডিউলে সড়কের অর্ধেক স্যালভেজ ধরা হয়েছে। সিডিউল অনুযায়ী পুরাতন ইট দিয়ে খোয়া বানিয়ে সাববেস করা হচ্ছে।
কিন্তু তার কথার সত্যতা মেলেনি। স্থানীয় ঢালী ব্রিকস’র কর্ণধার আব্দুল হক বলেন, তার ইটভাটা হতে প্রতি গাড়ি (দুই হাজার) ১৪হাজার ৫’শ টাকা দিয়ে ৪০ গাড়ি ইট কিনেছে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এছাড়া রাণী ব্রিকস থেকেও ইট কিনেছে বলে তিনি জানান।
ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার বিশ্বজিৎ দাস রাস্তা নির্মানে অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,সংস্থার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের দেখভালের পর প্রতি পর্যায়ের কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে।
এদিকে এরআগেও উপজেলার টেংরামারি রাস্তা নির্মাণে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। এনিয়ে গণমাধ্যমে অনিয়মের খবর প্রকাশিত হলে তোলপাড় শুরু হয়। এক পর্যায় সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধৃতন কর্তৃপক্ষের তৎপরতায় নিন্মমানের ইটসহ উপকরণ সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।
জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী ইফতেখার আলম বলেন, সড়ক নির্মাণে কোন ধরনের অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে।

SHARE