একাদশে ভর্তির প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ

দেড় লক্ষাধিক শিক্ষার্থী মনোনীত করেছে যশোর বোর্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে সব সরকারি-বেসরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির মনোনীত শিক্ষার্থীদের প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ করেছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি। গতকাল রবিবার রাতে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। আবেদনের প্রথম তালিকায় প্রায় ১ লাখ ৫৪ হাজার জনকে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির জন্য মনোনীত করা হয়েছে। এ সকল শিক্ষার্থীরা আবার মাইগ্রেশন করতে পারবে। তবে প্রথম ধাপে যে সকল শিক্ষার্থীরা ভর্তির জন্য মনোনীত হননি তারা দ্বিতীয় ধাপে আবারো আবেদন করার সুযোগ পাবেন বলে জানিয়েছেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক কে.এম রব্বানি।
বোর্ড সূত্রে জানা যায়, এ বছর যশোর বোর্ডে মোট ১ লাখ ৮২ হাজার ৩১০ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। এদের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬৮৮ জন। মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হয়েও এবার প্রায় ১১ হাজার শিক্ষার্থী একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হতে আবেদন করেনি।
নীতিমালা অনুযায়ী, গত ১২ থেকে ২৩ মে রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে কলেজে ভর্তি হতে আবেদন করে শিক্ষার্থীরা। বিগত কয়েক বছরের মতো এবারো মাধ্যমিকের ফলের ভিত্তিতে একাদশ শ্রেণীতে অনলাইনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হচ্ছে। প্রথম ধাপে মনোনীত হওয়া প্রথম পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা কলেজ নিশ্চিত করবে ১১ থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত। নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মোবাইল ব্যাংকিং চার্জ বাদে ১৯৫ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি রকেট, টেলিটক অথবা শিওরক্যাশের মাধ্যমে জমা দিয়ে ভর্তির প্রাথমিক নিশ্চয়ন করতে হবে। এই প্রক্রিয়ায় ভর্তি নিশ্চিত করতে না পারলে মনোনয়ন বাতিল হয়ে যাবে। তার আবেদনটিও বাতিল হয়ে যাবে। দ্বিতীয় পর্যায়ে আবেদন চলবে ১৯ ও ২০ জুন। ফল প্রকাশ হবে ২১ জুন। দ্বিতীয় পর্যায়ে কলেজ নিশ্চয়ন করা যাবে ২২ ও ২৩ জুন। তৃতীয় পর্যায়ে আবেদন নেয়া হবে ২৪ জুন। ফল প্রকাশ হবে ২৫ জুন। একই দিনে তৃতীয় পর্যায়ের ফল প্রকাশ করা হবে এবং তাদের কলেজ নিশ্চয়ন করতে হবে ২৬ জুনের মধ্যে। কলেজগুলোতে নিশ্চিত হওয়ার পর ২৭ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ভর্তি হতে হবে। আর ১ জুলাই একাদশ শ্রেণীর নতুন ব্যাচের ক্লাস শুরু হবে।
এ বিষয়ে যশোর শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক কে.এম রব্বানি বলেন, প্রথম দফায় ১০টি কলেজেও যদি কোনো শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ না পায়, তাহলে আরো দুই দফায় সে আবেদনের সুযোগ পাবে। কলেজগুলোতে ভর্তি হতে সরকারি নির্দেশনা মতে সেশনচার্জসহ মফঃস্বলে ১ হাজার টাকা, পৌর এলাকা, জেলা, সদর এলাকায় ২ হাজার টাকা, খুলনা মেট্রোপলিটন এলাকায় ৩ হাজার টাকা ভর্তি হতে লাগবে।

শেয়ার