যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন সম্পন্ন করতে এনএসসির চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন সম্পন্ন করতে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। জেলা ক্রীড়া সংস্থার অনিয়ম তদন্ত শেষে এনএনসি গত সপ্তাহে এ চিঠি দেয়। আর অনিয়ম প্রমাণ পাওয়ায় জেলার ৮টি ক্লাবের অ্যাফিলিয়েশন বাতিল করতে নির্দেশ দেওয়া হয়। পৃথক দুটি নির্দেশনার চিঠি জেলা প্রশাসক ও ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আব্দুল আওয়াল হাতে রয়েছে। আর এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে আগামী সপ্তাহে ক্রীড়া সংস্থার তফসিল ঘোষণা এবং ঈদের পরে নির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে জানিয়েছেন অতিরিক্ত যশোর জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার এডহক কমিটির সদস্য সচিব হুসাইন শওকত।
ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল মান্নান ও আসাদুজ্জামান মিঠু বিগত কমিটির বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ করে তদন্তের আবেদন করেছিলেন এনএসসিতে। এর প্রেক্ষিতে গত বছরের নভেম্বরে তদন্ত করে। সেই তদন্তের অনিয়মের প্রমাণ পেয়ে গত ৬ মে এনএসরি যুগ্ম সচিব মাসুদ করিম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালকে ৮টি ক্লাবের অ্যাফিলিয়েশনের বাতিল করতে বলেন। ক্লাবগুলো হচ্ছে লালদিঘী স্পোর্টিং ক্লাব লাল, আসাদ স্মৃতি সংসদ সাদা, বিপনন ক্লাব সবুজ, মুন্সী এরশাদ আলী স্মৃতি সংঘ হলুদ, বিপ্লব শহীদ স্মৃতি সংঘ লাল, আজাদ স্পোর্টিং ক্লাব লাল, প্রান্তিক ক্রীড়া চক্র লাল ও প্রান্তিক ক্রীড়া চক্র ব্লু।
অতিরিক্ত যশোর জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার এডহক কমিটির সদস্য সচিব হুসাইন শওকত বলেন, এনএসসির নির্দেশনা মোতাবেক দ্রুত ৮টি ক্লাবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আর যে আপত্তির কারণে নির্বাচন আটকে ছিল সেটাও এখন সমাধান হওয়ায় আপাতত নির্বাচন নিয়ে কোন জটিলতা নেই। আগামী সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা করা হবে এবং ঈদের পর নির্বাচন সম্পন্ন করা হবে।
উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১৫ জুন সর্বশেষ যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার চার বছর মেয়াদী কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। মামলার জটিলতার কারণে প্রায় দু’বছর পর ২০১৪ সালের ২২ এপ্রিল ক্ষমতা গ্রহণ করে কমিটি। গঠনতন্ত্রের নির্দেশনার আলোকে কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ শেষ হয় গত বছরের ২১ এপ্রিল। তবে মেয়াদ শেষ হওয়ার তিন মাস আগে নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু না করায় জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যক্রম পরিচালনায় স্থবির দেখা দেয়। পরে ২০১৮ সালের ২ আগস্ট জেলা প্রশাসককে আহ্বায়ক ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে (সার্বিক) সদস্য সচিব করে ৮ সদস্যর এডহক কমিটি গঠন করা হয়। এডহক কমিটি যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য গত ২২ অক্টোবরের মধ্যে প্রতিনিধির নাম চেয়ে প্রত্যেক ক্লাবকে চিঠি দেয়। নভেম্বরের মাসের শেষ সপ্তাহে নির্বাচন করার প্রাথমিক সিদ্ধান্তও নিয়েছিল এডহক কমিটি। তবে গত ১৯ আগস্ট জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব বরাবর ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল মান্নান ও আসাদুজ্জামান মিঠু বিগত কমিটির নানা অনিয়মের অভিযোগ দাখিল করে। এই অভিযোগের আলোকে এনএসসি’র পরিচালক (ক্রীড়া) শাহ আলম সরদারকে তদন্তের নির্দেশ দেন। সেই তদন্তের রিপোর্ট ও নির্বাচন আয়োজনে এনএসসি থেকে জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেয়া হলো।

SHARE