যবিপ্রবির অভ্যন্তরীণ বৃত্তি পেল ১১২ জন শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) অভ্যন্তরীণ বৃত্তি পেয়েছে বিশ^বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও বর্ষের ১১২ জন শিক্ষার্থী। সোমবার বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্যের দপ্তরে অভ্যন্তরীণ বৃত্তি বণ্টন কমিটির সভায় তাদের এ বৃত্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা বাৎষরিক এককালীন তিন হাজার ৫০০ টাকা করে বৃত্তি পাবেন। গত বছর বিভিন্ন বিভাগের ৬৭ জন শিক্ষার্থী তিন হাজার টাকা করে বৃত্তি পান। মূলত আর্থিকভাবে স্বচ্ছল নয় এমন দরিদ্র, মেধাবী ও নিয়মিত শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় উৎসাহ দিতে বিশ^বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ খাত থেকে এ বৃত্তি দেওয়া হয়। তাই সার্বিক দিক বিবেচনা করে এ আর্থিক বছরে বৃত্তির অর্থের পরিমাণ ও শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ানো হয়।
যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অভ্যন্তরীণ বৃত্তি বণ্টন কমিটির সভায় ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে প্রতি বিভাগ থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ জন শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তবে বিভাগ প্রতি পাঁচ জনের অধিক শিক্ষার্থীদেরকেও বিভাগের বিশেষ সুপারিশের ভিত্তিতে উপাচার্য মহোদয়ের ক্ষমতাবলে বৃত্তি প্রদান করা যাবে মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। উল্লেখ্য, ২০১৩-১৪ অর্থ বছর থেকে বিশ^বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ খাত থেকে এ বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের স্ব স্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে বিশ^বিদ্যালয়ের হিসাব দপ্তর থেকে বৃত্তির টাকা প্রদান করা হয়ে থাকে।
অভ্যন্তরীণ বৃত্তি বণ্টন কমিটির সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য যবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুল মজিদ, যবিপ্রবির ডিন অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, ডিন অধ্যাপক ড. শেখ মিজানুর রহমান, ডিন ড. মো. ওমর ফারুক, ডিন ড. মো. জাফিরুল ইসলাম ও ডিন ড. কিশোর মজুমদার, প্রাধ্যক্ষ প্রকৌশলী ড. মো. আমজাদ হোসেন, প্রাধ্যক্ষ ড. সেলিনা আক্তার, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের পরিচালক ড. মো. মীর মোশাররফ হোসেন, কমিটির সদস্য সচিব মো. শামসির জাহান রানা প্রমুখ।

শেয়ার