এবিসিডি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ ছিলো ‘সাজানো নাটক’!

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি ॥ যশোরের চৌগাছায় এবিসিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রী শ্লীতাহানির চেষ্টার ঘটনাটি দাবি করে অভিযোগকারি সেই ছাত্রী ও তার পরিবার বিভিন্ন দফতরে লিখিত দিয়েছেন। একজন প্রধান শিক্ষককের সম্মান নিয়ে যারা এই নোংরা খেলা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি উঠেছে।
সূত্র জানায়, উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নে এবিসিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহাজান কবীরের বিরুদ্ধে গত ১৯ মার্চ এক ছাত্রী শ্লীলতাহানির অভিযোগ করে। এঘটনায় শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ, মানববন্ধন ও ইউএনও অফিসে অভিযোগসহ নানা কর্মসূচি পালন করে। তবে যে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করার চেষ্টার অভিযোগ করা হয় সেই ছাত্রী ও ছাত্রীর পরিবারের লোকজন উল্লেখিত ঘটনা মিথ্যা, সাজানো ও পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন। সম্প্রতি ওই ছাত্রীসহ তার বাবা মা একটি লিখিতপত্র সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের সভাপতিসহ বিভিন্ন দফতরে দিয়েছেন। লিখিতভাবে জানানোর বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছে বিদ্যালয়ের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল হাসান।
লিখিত অভিযোগে ওই ছাত্রী জানিয়েছেন, গত ১৯ মার্চ স্যারকে নিয়ে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সত্য না। স্যারের বিরুদ্ধে আমি এ ধরনের কোন অভিযোগ করিনি। এলাকার একটি কুচক্রি মহল আমার হেড স্যারের বিরুদ্ধে বদনাম রটিয়েছে। যার সাথে আমার বা আমার পরিবারের কোন সদস্য সম্পৃক্ততা নেই। ছাত্রীর পিতা মমিনুর রহমান জানিয়েছেন, আমার মেয়েকে নিয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যে গুজব রটানো হয়েছে তা আদৌ সত্য না।
বিদ্যালয়ের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল হাসানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওই ছাত্রী ও তার পিতামাতার ৩টি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, সেদিনের ঘটনা সত্য ছিল না। এটি পরিকল্পিতভাবে সাজানো হয়েছে। ঘটনাটি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে, যারা এই নোংরা খেলা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

শেয়ার