কৃত্রিম পা নিয়ে ছোট্ট আফগান বালকের নাচ

সমাজের কথা ডেস্ক॥ আফগানিস্তানের পাঁচ বছরের বালক আহমাদ হাসপাতালের ওয়ার্ড এবং বারান্দায় ঘুরে ঘুরে মনের খুশিতে নেচে যাচ্ছে। কৃত্রিম পা পাওয়ার আনন্দেই তার এ নাচ।

মাত্র আট মাস বয়সে তালেবান ও আফগান সেনাবাহিনীর বন্দুকযুদ্ধের মধ্যে পড়ে পা হারায় আহমাদ সায়েদ রহমান।

তারপর থেকে কৃত্রিম পা (প্রোস্থেটিক লেগ) তার সঙ্গী। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এখন পর্যন্ত তার চারবার পা পাল্টাতে হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে আহমেদের নাচের ভিডিও পোস্ট করার পর তা ভাইরাল হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

আফগান রেড ক্রসের ফিজিওথেরাপিস্ট মুলকারা রহিমি সোমবার টুইটারে আহমাদের নাচের ওই ভিডিওটি পোস্ট করেন।

মাত্র এক দিনে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ ওই ভিডিওটি দেখেছেন। পরদিন কাবুলের সাংবাদিকদের সামনে নিজের নাচের দক্ষতা দেখায় আহমাদ।

ওই দিন সন্ধ্যায় স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলোর প্রধান খবর ছিল ‘আহমাদের নাচ’। টুইটারে আহমাদের ভিডিওতে শত শত কমেন্ট পড়েছে। অনেকে তার সাহায্যে এগিয়ে যাওয়ার ইচ্ছাও জানিয়েছেন।

রাজধানী কাবুলে রেড ক্রসের অর্থপেডিক সেন্টারে তার মা রাইসা সাংবাদিকদের বলেন, “সে সব সময় নেচে নেচে কৃত্রিম পা পাওয়ার আনন্দ প্রকাশ করে।”

“সে কৃত্রিম পা পেয়ে নিজে নিজেই চলাফেরা করছে দেখে আমিও খুব খুশি।”

আহমাদের ফিজিওথেরাপিস্ট সামিন সারওয়ারি বলেন, সে খুব দ্রুত বড় হচ্ছে। যে কারণে প্রায় প্রতি বছরই তার কৃত্রিম পা পাল্টাতে হচ্ছে।

কাবুলের দক্ষিণের লোগার প্রদেশের বাসিন্দা আহমাদের বাবা-মা কৃষি শ্রমিক।

আহমাদের মা বলেন, আহমাদ ও তার বোন দুইজনই বন্দুকযুদ্ধের মধ্যে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছিল। এক বছর বয়সে প্রথম আহমাদের কৃত্রিম পা সংযোজন করা হয়।

শেয়ার