যশোর আদালতের ক্যান্টিনের অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর আদালতের ক্যান্টিনের অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড। বুধবার দুপুরে জেলার পুরনো জজ আদালত চত্ত্বরের এ অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিন যশোর আদালতে হাজার হাজার লোক আসা-যাওয়া করে। কিন্তু আদালতের হাজতে থাকা হাজতিদের সাথে দেখা করতে আসে তাদের স্বজনেরা। এক পর্যায় স্বজনেরা হাজতিদের খাবার ও কিনে দেন। তবে সেই খাবার কিনতে হলে আর বাইরে যেতে হচ্ছে না। যশোর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পুরনো ভবনের সামনে বছর খানেক আগে থেকে একটি ক্যান্টিন তৈরি করা হয়েছে। তবে ক্যান্টিন ভবনটি তৈরি করেছেন জেলা জজ আদালতের গাড়ি চালক মাসুদুর রহমান। চাকরির ফাঁকে কখনো নিজে ছাড়াও ১০/১২ জন কর্মচারি নিয়ে ক্যান্টিন চালানো হচ্ছে। কিন্তু ওই ক্যান্টিনে চুরি করে সাবেক জেলা জজ আদালতের ভবন থেকে সংযোগ নেয়া হয়। দীর্ঘদিন চোরাই পথে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে ব্যবহার করে আসছিলেন জেলা জজ আদালতে গাড়ি চালক মাসুদুর রহমান। ওই ক্যান্টিনে প্রতিদিন ৬টি ফ্রিজ, ৬টি ফ্যান, ৮/১০টি লাইট ব্যবহার করা হচ্ছে।
চোরাই পথে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সহযোগিতা করছেন নাজির নূর হোসেন। প্রতিমাসে ওই ক্যান্টিন থেকে বিদ্যুৎ বিল বাবদে ৩ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নেন নূর হোসেন। কিন্তু নূর হোসেন নিজে পকেটস্থ করলেও সরকারের ঘরে তা জমা হচ্ছে না। এরই মধ্যে বিষয়টি জানতে পারে বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন। গতকাল বুধবার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা সেখানে গিয়ে সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন। এব্যাপারে ক্যান্টিন মালিক মাসুদুর রহমান বলেছেন, তিনি কোন বিদ্যুৎ সংযোগ নেননি।
উল্লেখ্য, নূর হোসেন নাজির জেলা জজ আদালত যশোর ওই দপ্তরে যোগদান করার পর নানা অনিয়ম শুরু হয়েছে। যশোর জেলা জজ আদালতে ২৫ জন নৈশ প্রহরী থাকলেও তাদের খুঁজে পাওয়া যায় না। অভিযোগ রয়েছে নাজির ওই নৈশ প্রহরীদের কাছ থেকে হিস্যা নিয়ে দিনের বেলায় ল্যান্ড সার্ভে, জেলা জজের সেরেস্তা, সদর কোর্টসহ বিভিন্ন এজলাসে ডিউটি দিয়ে থাকেন। পাশাপাশি নাজিরের ছেলে একটি ব্যাংকে চাকরি করলেও নৈশ প্রহরীদের দিয়ে তার দুপুরের খাবার পৌছে দেন।
এব্যাপারে নাজির নূর হোসেন বলেছেন, মাসুদুর রহমান ক্যান্টিন অবৈধভাবে তৈরি করেছেন। তিনি কোন টাকা দেন না।
এব্যাপারে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী রবিউল করীম বলেছেন, সরকারি দপ্তরের মিটার থেকে চুরি করে বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারের অভিযোগে ওই ক্যান্টিনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।

শেয়ার