আশাশুনিতে ঘের বিরোধে মোনায়েম হত্যাকান্ডে চেয়ারম্যানসহ গ্রেপ্তার ৩

ফায়জুল কবীর, আশাশুনি ॥ আশাশুনিতে ঘের পরিচালক মোনায়েমকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় ১৯ জনের নাম উল্লেখসহ ১৮/২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। এই মামলায় পুলিশ ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি মোনায়েম হোসেন সানাসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। বৃহস্পতিবার সকালে প্রকৃত দোষীদের ফাঁসির দাবিতে এলাকায় মানববন্ধন করেছে এলাকার সহ¯্রাধিক মানুষ।
মামলা সূত্রে ও সরেজমিনে ঘুরে জানাগেছে, উপজেলার শোভনালী ইউনিয়নের বালিয়াপুর মৌজায় খোলচক নামক স্থানে ১৫ বিঘা জমির মৎস্য ঘের নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম গাইন পরিবারের সাথে ওই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি প্রভাষক মোনায়েম হোসেন সানা গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে জমি দখল-পাল্টা দখলের ঘটনা অব্যহত ছিল। এরই মধ্যে বুধবার অনুমান সকাল ৮টার দিকে ঘের পরিচালনাকারী গোদাড়া গ্রামের মৃত. হেলাল গাইনের পুত্র রুহুল আমিন (৬০), তার চাচাত ভাইপো পার্শ্ববর্তী চাম্পাফুল গ্রামের মৃত শাহাজুদ্দিন গাইনের পুত্র মোনায়েম হোসেন গাইনসহ (৩৭) তাদের পক্ষীয় লোকজন নিয়ে ঘেরে অবস্থান করছিলেন। এ সময় প্রতিপক্ষরা ভাড়াটে ঢালীসহ দলবদ্ধ হয়ে ধারালো দা, চাইনিজ কুড়াল, কোপা, লোহার শাবল, রডসহ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ঘেরে হামলা চালায়। এ সময় ঘেরে অবস্থান করা রুহুল আমিন গাইনের গ্রুপের লোকজনের বাঁধার মুখে প্রতিপক্ষরা পিছু হটে যেতে থাকে। প্রতিমধ্যে প্রতিপক্ষরা মোনায়েম গাইনকে একা পেয়ে চাইনিজ কুড়াল ও লোহার রড় দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে অজ্ঞান অবস্থায় ফেলে রেখে যায়। পার্শ্ববতী ঘের ও আহতের স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে মুমুর্ষ অবস্থায় দ্রুত সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে খুলনা ৫০০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ১টার দিকে মোনায়েম হোসেন গাইন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এ ঘটনায় রুহুল আমিন গাইন বাদি হয়ে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম গাইন, তসলিম রহমান বাচ্চু ও আব্দুর রাজ্জাককে সাথে নিয়ে শোভনালী ইউপি চেয়ারম্যানকে ১নং আসামি করে ১৯ জনের নাম উল্লেখ পুর্বক আরও ১৮/২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে আশাশুনি থানায় ০২(০৫)১৯ নং হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ শোভনালী ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক মোনায়েম হোসেন সানা, তার সহোদর আশারাফ উদ্দীন মকবুল সানা ও লিটন সরদার ওরফে বাবুকে মামলা রুজুর আগে আটক রাখলেও মামলা দায়েরের পর বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার দেখিয়ে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছে।
এদিকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টার দিকে মোনায়েম গাইন হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে চাম্পাফুল কালিবাড়ী বাজারে দীর্ঘ মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম গাইন, সমাজসেবক একরামুল কবীর, মিল্টন মোল্যা, শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ। এ সময় বক্তারা বলেন, শোভনালী ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক মোনায়েম হোসেনের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও ঘের দখলকারি নাজমুস সাকিব লিটন ও চিহ্নিত মাছচোর হবিসহ তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী কর্তৃক মোনায়েম হত্যার ফাঁসির দাবী জানান।

শেয়ার