বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সবুজ জার্সিতে লাগছে লালের ছোঁয়া

সমাজের কথা ডেস্ক॥ প্রবল সমালোচনার পর বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপের সবুজ জার্সিতে লাল রঙ যোগ করেছে বিসিবি। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান জানিয়েছেন, এরই মধ্যে নতুন জার্সির অনুমোদন দিয়েছে আইসিসি।

ইংল্যান্ডে ৩০ মে শুরু হতে যাওয়া বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরের জন্য বাংলাদেশ দুটি জার্সি বানায়। মঙ্গলবার লাল রঙের জার্সি সাংবাদিকদের দেখান বিসিবি প্রধান। এই জার্সির দুই হাতা এবং বুকে আছে সবুজের ছোঁয়া।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গত সোমবার বিশ্বকাপের জন্য সবুজ রঙের জার্সি উন্মোচন করে বিসিবি। সেখানে কোথাও লাল না থাকায় অনলাইনের সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে প্রবল সমালোচনা শুরু হয়।

বিসিবির গণমাধ্যম ও যোগাযোগ কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস জানান, দুটি জার্সির জন্য বেছে নেওয়া হয়েছিল দুটি ভিন্ন ডিজাইন।

নাজমুল হাসান মঙ্গলবার বিকেলে ধানম-িতে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, শুরুতে সবুজ রঙের জার্সিতে লাল রংয়ে খেলোয়াড়দের নাম আর নম্বর লেখা ছিল।

“আমাদের যে কমিটি আছে ওরা ডিজাইন পছন্দ করে আইসিসিতে পাঠিয়েছিল। আইসিসি যখন লাল হরফ ব্যবহার করতে মানা করে তখন ওরা অক্ষরগুলো সাদা করে দেয়। এ কারণেই সেখানে কোনো লাল রঙ ছিল না।”

বোর্ড প্রধান মনে করেন, জার্সির সঙ্গে জাতীয় পতাকাকে মেলানো ঠিক নয়। তবে সাধারণত লাল-সবুজ রাখার চেষ্টা বিসিবির থাকে।

“আমাদের ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপের জার্সিতেও কিন্তু লাল রঙ ছিল না। সবুজের সাথে হলুদ ছিল। জার্সির সাথে জাতীয় পতাকার সম্পর্ক টেনে আনা আমার মনে হয় সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। তবে লাল-সবুজ রাখা আমরা শুরু করেছি, আমরা এটি দিচ্ছি এবং দেওয়ার চেষ্টা করে যাবো।”
বিসিবি সভাপতি জানান, জার্সি পরিবর্তনের অনুমতি পাওয়ার পর নতুন জার্সি আইসিসিতে পাঠানো হয়। এরই মধ্যে সবুজ জার্সির অনুমোদনও মিলেছে।
“জার্সি উন্মোচনের সময় লাল রঙ না থাকার ব্যাপারটি আমরা লক্ষ্য করিনি। ধরা পড়ার পর আইসিসির কাছে আমরা জানতে চাই, জার্সিতে পরিবর্তন আনা সম্ভব কি না। তারা বলেছে, ‘লাল রঙের হরফ কোনোভাবে রাখা যাবে না।’ তখন আমরা নতুন ডিজাইন পাঠাই, যার অনুমোদন তারা দিয়েছে।”
নতুন সবুজ জার্সিতে দুই হাতায় থাকছে লাল রঙ। বুকে লাল রঙের একটি শেড থাকবে। সেখানে সাদা রঙে লেখা থাকবে বাংলাদেশ।

শেয়ার