বিশ্বকাপে বাংলাদেশের উজ্জ্বল সম্ভাবনা দেখছেন লারা-পিটারসেনরা: হাবিবুল

সমাজের কথা ডেস্ক॥ দেশের বাইরের লিগে ধারাভাষ্য দিচ্ছেন, এমনিতেই দারুণ রোমাঞ্চিত ছিলেন হাবিবুল বাশার। সেই অভিজ্ঞতা আরও উপভোগ্য হয়ে উঠছে চারপাশ থেকে বাংলাদেশ দলের স্তুতি শুনে। ক্রিকেট জগতের মহাতারকাদের মধ্যে যাদের সঙ্গেই দেখা হচ্ছে, প্রায় সবাই বাংলাদেশ দলকে শুভ কামনা জানাচ্ছেন হাবিবুলের মাধ্যমে। শোনাচ্ছেন উজ্জ্বল সম্ভাবনার কথা।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় প্রতিনিধি হিসেবে এবার আইপিএলে বাংলা ধারাভাষ্য দিতে গেছেন হাবিবুল। শুরুর কিছুদিন ধারাভাষ্য দিয়েছেন আতাহার আলি খান। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল নির্বাচন শেষে সপ্তাহখানেক আগে গেছেন জাতীয় দলের অন্যতম নির্বাচক হাবিবুল।

বাংলা চ্যানেল হলেও ধারাভাষ্য দিচ্ছেন মুম্বাইয়ের স্টুডিও থেকে। সেখানে স্টার ইন্ডিয়ার একই ভবনে কাজ হচ্ছে আইপিএলের সব টিভি আয়োজনের। বিশ্লেষণমূলক ধারাভাষ্য ‘ডাগ আউট’, আরও নানা বিশ্লেষণভিত্তিক অনুষ্ঠান, সব এখানকার স্টুডিওতেই হচ্ছে। যারা কাজ করছেন, তাদের সবার দেখা-কথা হচ্ছে নিয়মিতই।

ধারাভাষ্য দেওয়ার পাশাপাশি সেই আড্ডা পর্বও দারুণ উপভোগ করছেন হাবিবুল, মুম্বাই থেকে জানালেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরফোর ডটকমকে।

“ধারাভাষ্যের অভিজ্ঞতা দারুণ। তবে আরও ভালো লাগছে, অনেকের সঙ্গে দেখা হচ্ছে, কথা হচ্ছে। অনেকের সঙ্গে আগে থেকেই পরিচয় ছিল, কারও কারও সঙ্গে পরিচয় হচ্ছে নতুন করে। বিশ্বকাপের হাওয়া লেগেছে সবারই। আইপিএলের মধ্যেও তাই বিশ্বকাপের কথা চলে আসছে অনেক।”

“আমার সবচেয়ে ভালো লাগছে, বাংলাদেশ দল নিয়ে ভালো কথা শুনছি সবার কাছেই। ব্রায়ান লারা, কেভিন পিটারসেন, ডিন জোন্স, স্কট স্টাইরিস, বিরেন্দর শেবাগ, ওরা সবাই নিজে থেকেই আমাকে বলছেন যে বাংলাদেশের খুব ভালো সম্ভাবনা আছে এবার। গোছানো দল, অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে, ওদের মতে বড় আসরে এসব অনেক বড় ব্যাপার।”

ধারাভাষ্য দেওয়ার অভিজ্ঞতাও এখনও পর্যন্ত দারুণ হাবিবুলের কাছে। মুগ্ধ তিনি আইপিএলের পেশাদারিত্বে।

“আইপিএলকে ঘিরে সত্যি বলতে মহাযজ্ঞ চলছে এখানে। তবে সব কিছুই খুব সিস্টেমেটিক। পেশাদারভাবে সব সামলায় ওরা। আমার ভালো লাগছে কাজ করতে। খেলা ভালো হচ্ছে, এখানে আইপিএল নিয়ে লোকের আগ্রহও প্রবল। যদিও বেশ খাটুনি আছে, সময় অনেক দিতে হয়। তার পরও সবকিছু মিলিয়ে পুরো আবহ উপভোগ করছি।”

খুব বেশি সময় অবশ্য কাজটি চালিয়ে যেতে পারছেন না হাবিবুল। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন আয়ারল্যান্ডে যাচ্ছে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার হিসেবে। দেশে একজন নির্বাচককে থাকতে হবে। সোমবারই তাই ফেরার কথা হাবিবুলের।

শেয়ার