বিরূপ আবহাওয়ার মধ্যে যশোর
রাতে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত; দিনে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা

সালমান হাসান রাজিব
গত কয়েকদিন ধরে বিরূপ আবহাওয়া বিরাজ করছে যশোরে। শুক্রবার দেশের মধ্যে এ জেলাটিতে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এর পরদিনই (শনিবার) আবার বিরাজ করছে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। এমন আবহাওয়ার মধ্যে যাপিতজীবনে নানা অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছে।
যশোর বিমানবাহিনীর আবহাওয়া অফিস সূত্র মতে, শুক্রবার দিনভর তীব্র তাপদাহ ছিল যশোরে। এদিন জেলায় দেশের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা উঠে। এদিন সন্ধ্যায় দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় ১৯ মিলিমিটার। শুক্রবারের রাতটুকু একটু শীতল হলেও শনিবার বেলা বাড়ার সাথে সাথে রোদের তেজ বাড়তে শুরু করে। ফলে ফের বাড়তে থাকে গরমের তীব্রতা। এদিন দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়া অফিস সূত্র বলছে, খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া এই তাপপ্রবাহ আরো বেশ কয়েকদিন অব্যাহত থাকবে। এছাড়া দিনের বেলায় তাপমাত্রা আরো বাড়তে পারে।
গতকাল সন্ধ্যায় আবহাওয়া অফিস তাদের পরবর্তী চব্বিশ ঘন্টার পূর্বাভাসে জানিয়েছে, খুলনা বিভাগের কয়েকটি স্থানে অস্থায়ী ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গভীর সাগরে সৃষ্টি হওয়া নি¤œচাপের কারণে কালবৈশাখী ঝড় তান্ডব চালাতে পারে বলে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। পূর্বভাসে বলা হয়েছে, রোববার ভোর ৫টার মধ্যে খুলনা যশোর, কুষ্টিয়াসহ দেশের ১৮টি জেলার ওপর দিয়ে অস্থায়ীভাবে পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বা এর চেয়েও বেশি বেগে কালবৈশাখী ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নিরক্ষীয় ভারত মহাসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি সামান্য উত্তর দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ হিসেবে দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন নিরক্ষীয় ভারত মহাসগর এলাকায় অবস্থান করছে। তবে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ নিয়ে বাংলাদেশের উপকূলবাসীর জন্য শঙ্কার তেমন কিছু আপাতত দেখতে পাচ্ছে না আবহাওয়া অফিস। এখন পর্যন্ত এটির যে অভিমুখ, সেটি ভারতের উপকূল অতিক্রম করেই শান্ত হবে বলে মনে হচ্ছে। তবে শংকা রয়েছে এর থেকে যে কালবৈশাখী ঝড় সৃষ্টি হতে পারে সেটি নিয়ে। এটি ১৮ জেলার উপর তান্ডব চালাপতে পারে। যার প্রভাব এসব জেলারা আশপাশের এলাকার উপর পড়তে পারে।