যশোরে পুলিশের কথিত সোর্স বিল্লাল ও তার স্ত্রীকে গণধোলাই

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সাধারণ মানুষকে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার নামে চাঁদাবাজির অভিযোগে কথিত সোর্স বিল্লাল হোসেন ও তার স্ত্রী মুন্নিকে গণধোলাই দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনগণ। বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার কচুয়া গ্রামে এ ঘটনার পর পুলিশ তাদের উদ্ধার করেছে। বিল্লাল হোসেন যশোর শহরের বারান্দীপাড়া এলাকায় আর তার স্ত্রী মুন্নি খাতুনের বাড়ি বেজপাড়ায়।
সূত্র জানিয়েছে, বিল্লাল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের সিভিল টিমের কথিত সোর্স পরিচয় দিয়ে এলাকার লোকজনদের মাদক কারবারী আখ্যা দিয়ে ধরিয়ে দিয়েছে। এ কারণে সে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে ব্যাপকভাবে চাঁদাবাজিও করেছে। এতে সাধারণ মানুষ তার প্রতি অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে।
সূত্র আরো জানায়, বিল্লালের অত্যাচারে কচুয়া ও আশপাশের লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে তাকে শায়েস্তা করার অপেক্ষায় ছিল স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে কচুয়া গ্রামের শতাধিক ক্ষুব্ধ লোকজন পুলিশের কথিত সোর্স বিল্লাল ও তার স্ত্রী মুন্নিকে দেখতে পেয়ে পাকড়াও করেন। এরপর তাদের গণধোলাই দেয়।
এসআই মনিরুজ্জামান জানিয়েছেন, ইতিপূর্বে বিল্লাল সাধারণ ও নিরীহ লোকজনকে মাদক কারবারী আখ্যা দিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার অভিযোগে তাদের গণধোলাই দেয়া হয়েছে। তবে ঘটনাস্থলে বিক্ষুব্ধ শতাধিক লোকজন থাকায় তাদেরকে (বিল্লাল ও তার স্ত্রী) থানায় নিয়ে আসা হয়।

শেয়ার