বাঘারপাড়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় এক আসামির কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরের বাঘারপাড়ায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় মিনারুল ইসলাম নামে এক আসামিকে ৩ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক টিএম মুছা এ রায় দেন। দ-প্রাপ্ত মিনারুল ইসলাম বাঘারপাড়া উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামের আব্দুল মালেক মোল্যার ছেলে। সরকার পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি এম ইদ্রিস আলী।
মামলার বিবরণ মতে, আসামি মিনারুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের এক গৃহবধূকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। রাজি না হওয়ায় ২০০৭ সালের ৬ জুন রাতে ওই গৃহবধূর বাড়িতে গিয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় গৃহবধূর চিৎকারে মিনারুল তার ঘরের ডাসা দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় আঘাত করে। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। এসময় আশপাশের লোকজন এসে মিনারুলকে ধরে ফেলে। এখবরে মিনারুলের দুই ভাই মফিজুর রহমান ও হাবিবুর রহমান এসে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এরপর স্থানীয়রা ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসা শেষে তিনি নিজেই বাদী হয়ে মিনারুল ও তার আরো ২ ভাইকে আসামি দিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন। তদন্ত কর্মকর্তা ২ ভাইকে অব্যাহতি দিয়ে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার মিনারুলকে ৩ বছরের সশ্রম কারাদ- ও ৫ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন বিচারক। জরিমানার টাকা অনাদায়ে তাকে আরো এক মাসের বিনাশ্রম কারাদ-ের আদেশ দেয়া হয়েছে।

শেয়ার