পাইকগাছায় ছাত্রকে পিটিয়ে বিপাকে শিক্ষক

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥ পাইকগাছার পাশ্ববর্তী চান্নিরচক এলসি কলেজিয়েট স্কুলের শিক্ষক শিবপদ মন্ডলের বিরুদ্ধে দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে মারপিট করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। আহত শিক্ষার্থীকে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। এদিকে এঘটনায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। যেকারণে কয়েক ঘন্টা আগেই স্কুল ছুটি ঘোষণা করা হয়। এ ঘটনায় শিক্ষক শিবপদ মন্ডলের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানের অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।
প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে চান্নিরচক এলসি কলেজিয়েট স্কুলের শিক্ষক শিবপদ মন্ডল দশম শ্রেণির ইংরেজি প্রথমপত্র পাঠদান করার সময় শ্রেণি কক্ষের একটি দরজা খোলা দেখেন। এ সময় তিনি শিক্ষার্থী কল্লোল সরকারকে দরজাটি আটকানোর কথা বলে। কল্লোল অনেক চেষ্টা করে দরজাটি আটকাতে ব্যর্থ হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষক শিবপদ মন্ডল তার উপর চড়াও হয়ে তাকে বেদম মারপিট করেন। এতে গুরুতর আহত হয়ে কল্লোল অচেতন হয়ে পড়ে। পরে সহকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী শুরিখালী বাজারে চিকিৎসক জগবন্ধু মন্ডলের নিকট নিয়ে যায়। সেখানে প্রায় ৩ থেকে ৪ ঘন্টা চিকিৎসা করার পর কল্লোল কিছুটা সুস্থ হয়। এ ঘটনার পর অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে দুপুর ১টার আগেই ছুটি ঘোষণা করা হয়।
এ ব্যাপারে শিক্ষক শিবপদ মন্ডল বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও শেষমেষ মারপিট করার বিষয়টি স্বীকার করেন। ডাঃ জগবন্ধু মন্ডল জানান, স্কুলের সহপাঠিরা সকাল ১০টার দিকে কল্লোলকে আমার চেম্বারে নিয়ে আসে। তার ঘাড়ে গুরুতর আঘাত লাগায় সে অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। প্রধান শিক্ষক রাজিব কুমার বাছাড় জানান, এ ধরণের অভিযোগ করলে আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

শেয়ার