ভৈরবের পাড়ের সৌন্দর্য বর্ধনে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ স্বপ্নপূরণের দ্বারপ্রান্তে যশোরবাসী। শেষ পর্যন্ত ভৈরবের পাড়ের সৌন্দর্যবর্ধনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যশোর শহরের অংশে নদের পাড়ে হাঁটার পথ, বসার জায়গা নির্মাণ ও সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। দড়াটানা থেকে বকুলতলা পর্যন্ত নদের যে অংশ সম্প্রতি দখলমুক্ত করা হয়, সেখানে এই কাজ হবে। এলজিইডি মঙ্গলবার এই বরাদ্দ দেয় বলে নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দখলদার উচ্ছেদের পর শহরের প্রাণকেন্দ্রে দড়াটানা থেকে বকুলতলা পর্যন্ত অংশে সুন্দর পরিবেশ তৈরির জন্য তৎপরতা শুরু হয়। এরই অংশ হিসেবে এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ গত ১৩ এপ্রিল দড়াটানার ওইস্থান পরিদর্শন করেন। তখন প্রকল্প পরিচালক মঞ্জুর হোসেন, যশোরের জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল আওয়াল, পুলিশ সুপার মঈনুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ওইদিনই প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য দ্রুত দড়াটানার সৌন্দর্যবর্ধনের ইচ্ছা প্রকাশ করেন। সেই অনুযায়ী পরদিন এলজিইডির একটি দল ভৈরব নদের ধারে সংশ্লিষ্ট এলাকা পরিদর্শন করে এস্টিমেট করেন। এর পর মঙ্গলবার মন্ত্রণালয় থেকে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়।
বরাদ্দ হওয়া টাকায় দড়াটানা থেকে বকুলতলা পর্যন্ত হাঁটার রাস্তা (ওয়াকওয়ে), মানুষের বসার জায়গা (বেঞ্চ) নির্মাণ করা হবে। পর্যায়ক্রমে এই কাজের জন্য আরো টাকা বরাদ্দ হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা আভাস দিয়েছেন।
গত ২৮ মার্চ শহরের দড়াটানা মোড় থেকে বকুলতলা পর্যন্ত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জেলা প্রশাসন। এর আগে শুরু হয় ভৈরব নদ খনন।

SHARE