লোহাগড়ায় মাজার ভাংচুরের অভিযোগ

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি॥ নড়াইলের লোহাগড়ার দোয়া মল্লিকপুর গ্রামে মৃত শেখ ওসমান কেবলা আল মাইজ ভান্ডারির মাজার শরীফ ও মাজার শরীফের সীমানা প্রাচীর ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১১ এপ্রিল ভোর ৫টার দিকে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয় বলে অভিযোগ।
দোয়া মল্লিকপুর গ্রামের এস এম মাসুদ রানা অভিযোগে জানান, আমার পিতা শেখ ওসমান কেবলা আল মাইজ ভান্ডারি তরিকত ফেডারেশনের সৈয়দ নজিবুল বাশার আল হাসানী আল হুসাইন মাইজ ভান্ডারি এমপির তরিকতে বিশ^াসী সাধক ছিলেন। দেশের বিভিন্ন এলাকায় আমার পিতার ভক্ত রয়েছে। পিতার মৃত্যুর পরে তাকে আমাদের নিজ বাড়ির জমিতে সমাহিত করা হয়। উক্তস্থানে বহু টাকা ব্যয় করে সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ করে মাজার শরীফ স্থাপন করা হয়। আমার বাবার মৃত্যুবার্ষিকীতে এখানে ওরস শরীফের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এবছরও আমার পিতার মৃত্যবার্ষিকীতে ওরস শরীফ অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় কয়েকজন উগ্রবাদী ওরস শরীফ পন্ড করতে নানা হুমকি ধামকি দেওয়াসহ ষড়যন্ত্র করেছিল। আমি এ বিষয়ে লোহাগড়া থানায় গত ৯ এপ্রিল জিডি করেছিলাম। জিডি নং-৩৪৫। কিন্তু গত ১১ এপ্রিল ভোর ৫টার দিকে ওই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে দোয়া মল্লিকপুর গ্রামের সেকেন্দার মোল্যা, ওহিদুর মোল্যা, যুবায়ের মোল্যা, বাবুল মোল্যা, গোলাম খা, চুন্নু মোল্যা, লিমন মোল্যা, সাহিদুর মোল্যা, মন্টু মোল্যা, জাহিদুর মোল্যাসহ অন্তত অনেকে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমাদের বাড়ির মাজারে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা আমাকে ও আমার মৃত পিতাকেও গালিগালাজ করে। ওই সন্ত্রাসীরা আমাকে হত্যারও হুমকি দিয়েছে। হামলায় সন্ত্রাসীরা প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি করেছে। এ ঘটনায় তিনি লোহাগড়া থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

SHARE