দ্বিতীয় ধাপে ১১৬ উপজেলায় ভোট আজ

সমাজের কথা ডেস্ক॥ পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ১১৬ উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে আজ সোমবার (১৮ মার্চ)। রোববার সন্ধ্যায় (১৭ মার্চ) ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ তথ্য জানান।
ইসি সচিব বলেন, ‘সারাদেশে পাঁচ ধাপে ৪৮০ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন হবে। আপনারা জানেন, দ্বিতীয় ধাপে ১৭টি জেলার ১২৯টি উপজেলায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীতে আদালতের আদেশে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নির্বাচন স্থগিত করা হয়। এছাড়া গোপালগঞ্জের পাঁচটি উপজেলার নির্বাচন তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে, এটা আমরা শিফট করে দিয়েছি। দিনাজপুর জেলার সদর উপজেলার নির্বাচন চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। আর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছয়টি উপজেলা পরিষদে তিন পদেই প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছে। সুতরাং এই ছয়টিতেও আর ভোটগ্রহণের প্রয়োজন হবে না। সবমিলিয়ে আগামীকাল ১১৬টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ হবে।’
চট্টগ্রামের রাউজান, মিরসরাই, নোয়াখালীর হাতিয়া, ফরিদপুর সদর, পাবনা সদর এবং নওগাঁ সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান- এই তিন পদেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় এখানে ভোট হবে না।
ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে আগামীকাল সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে। এই নির্বাচন যেন শান্তিপূর্ণ হয়, সে জন্য নির্বাচন কমিশন থেকে যাবতীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। আজও বিকেল ৩টায় নির্বাচন কমিশন এ বিষয়ে সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেছেন।’

তিনি বলেন, ‘তিন পার্বত্য জেলাতে আমরা সেনাবাহিনীর সহায়তা চেয়েছি। আপনারা জানেন, এখানে বিরাজমান কিছু পরিস্থিতি আছে। শান্তিচুক্তির পক্ষে বিপক্ষে কিছু সমস্যা আছে। পাহাড়িদের মধ্যে যে উত্তেজনা থাকে, সেগুলোকে প্রশমিত করার জন্য সেনাবাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছি এবং সেভাবে তাদের সহযোগিতা থাকবে। সেনাবাহিনী এসব জায়গায় ১৭, ১৮ ও ১৯ মার্চ দায়িত্ব পালন করবে।’
ইসি সচিব আরও বলেন, ‘আগামীকাল যে নির্বাচন হবে সেটা যেন শান্তিপূর্ণ হয় এবং কোথাও যেন অনিয়ম না হয়, সে ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন কঠোর মনোভাব প্রকাশ করেছে। কেউ যদি অনিয়মের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

শেয়ার