যশোরে আত্মহত্যার চিরকুট লিখে শিক্ষার্থী নিখোঁজ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে আত্মহত্যার চিরকুট লিখে নিখোঁজ হয়েছেন তিশা খাতুন ওরফে নিশি (১৮) নামে এক শিক্ষার্থী। বুধবার বেলা ৩টার দিকে সদর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে খালু ওলিয়ার রহমানের বাড়ি থেকে তিনি নিখোঁজ হন। তিশা ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার খদ্দ ধোপাদি গ্রামের রবিউল ইসলামের মেয়ে। এব্যাপারে তিশার খালু ওলিয়ার রহমান বাদী হয়ে এদিনই কোতোয়ালি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।
জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, খালু ওলিয়ার রহমানের বাড়িতে থেকে তার দুই খালাতো বোনের সাথে তিশা যশোর সদর উপজেলার সাহাবাজপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২০১৯ সালে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছেন। গতকাল বুধবার বেলা ৩টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায় তিশা। কিছুক্ষণ পর তাকে না পেয়ে খালু ওলিয়ার রহমানসহ পরিবারের লোকেরা সম্ভাব্য স্থানে খোঁজাখুজি করে। এরই মধ্যে তিশার পড়ার টেবিলের দিকে নজর পড়ে পরিবারের। ওই টেবিলের উপরে একটা চিরকুট পাওয়া যায়। চিরকুটে লেখা রয়েছে সে আত্মহত্যা করবে। এঘটনায় নিশির খালু বাদী হয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।
নিশির শারীরিক বর্ণনায় উল্লেখ করা হয়েছে, নিশি ৫ ফুট ২ ইঞ্চি লম্বা, মুখমন্ডল গোলাকার, মাথায় বাবরি চুল আছে, গায়ের রঙ পরিস্কার, মুখে ডান পাশে ঠোঁটের কাছে একটি কালো তিল আছে, ডান হাতের কব্জির উপরে কাটা দাগের চিহ্ন আছে এবং কাঁঠালি রঙের স্যালোয়ার কামিজ পরনে ছিল। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিশার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

SHARE