চৌগাছা সোনালী ব্যাংকের পাঁচ’শ টাকার বান্ডিলে ১শ টাকার নোট!

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি ॥ যশোরের চৌগাছায় একটি ব্যাংক থেকে গ্রাহক টাকা উত্তোলন করার পর ৫’শ টাকার নোটের বান্ডিলের মধ্যে পাওয়া গেল ১’শ টাকার নোট। বিষয়টি জানাজানির পর গ্রাহকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। এটি গ্রাহকদের সাথে রীতিমত প্রতারণা করা হয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বলছে অসাবধনতা বশত হয়ত টাকাটি বান্ডিলে চলে গেছে।
সূত্র জানায়, উপজেলার ধুলিয়ানী সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল আলিম মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে সোনালী ব্যাংক চৌগাছা শাখা হতে ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। বিদ্যালয়ের মোট ১৬ জন শিক্ষকের ১৬টি চেকের মাধ্যমে তিনি এই টাকা উত্তোলন করেন। ব্যাংকের ক্যাশিয়ার জয়নাল আবেদিনের নিকট থেকে তিনি সমুদয় টাকা বুঝে নেন। এসময় শিক্ষক আব্দুল আলিম ক্যাশিয়ারের নিকট ১ হাজার টাকার বান্ডিল চাইলে তিনি দিতে অপরাগতা প্রকাশ করেন। চারটি ৫’শ টাকার বান্ডিল (বান্ডিলে ৫০ হাজার) টাকা করে মোট ২ লাখ ও বাকি ৩০ হাজার টাকাও ৫’শ টাকার নোটের বান্ডিল দেন। শিক্ষক আব্দুল আলিম তার অপর সহকারী শিক্ষক আব্দুল আজিজ ক্যাশিয়ারের সামনেই টাকা হিসাব করে বুঝে নিতে থাকেন। এসময় পিন করা ৫’শ টাকার একটি বান্ডিলের মধ্যে একটি ১’শ টাকার নোট দেখতে পান তারা। বিষয়টি ক্যাশিয়ার জয়নাল হোসেনকে অবহিত করলে তিনি দ্রুত ওই বান্ডিল পরিবর্তন করে শিক্ষকদের আর একটি বান্ডিল দেন। এ ঘটনাটি জানাজানি হলে ব্যাংকে উপস্থিত সকল গ্রাহকের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। টাকা উত্তোলনকারী শিক্ষক আব্দুল আলিম বলেন, মনে করেন পরিকল্পিত।
এবিষয়ে সোনালী ব্যাংক চৌগাছা শাখার সেকেন্ড অফিসার রাজিবুল হাসান বলেন, অনেক ব্যাংক আমাদের সাথে লেনদেন করেন। এটি অসাবধনতা বশত হয়েছে বলে আমি মনে করছি। ভবিষ্যতে যেন এমন কোন ভুল না হয় তার জন্য আমি সকলের সাথেই কথা বলেছি।

SHARE