ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে স্ত্রী রেবা রাণীকে (৪০) হত্যার পর শৈলেন কুমার (৫০) নামে এক ব্যবসায়ী গলাই ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে কালীগঞ্জে শহরের নীমতলা বাসস্টান্ডের থানাপাড়া এলাকার মোদাচ্ছের নামে এক ব্যক্তির ভাড়া বাড়ি থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত শৈলেন কুমারের বাড়ি যশোর সদর উপজেলার সাতমাইল। আর স্ত্রী রেবা রাণীর বাড়ি মাগুরা সদর উপজেলার নিত্যনন্দপুর গ্রামে। শৈলেন কুমার পেশায় একজন কাঁচামাল ব্যবসায়ী ছিলেন।

ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, নিহত রেবা রাণীর মরদেহ বিছানার ওপর পড়ে আছে। পাশের জানালার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে রয়েছেন তার স্বামী শৈলেন কুমার।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক বছর আগের শৈলেন কুমারের প্রথম স্ত্রী বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে মারা যান। এরপর তিনি রেবা রাণীকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর কালীগঞ্জ শহরের নীমতলা বাসস্টান্ডের থানাপাড়া এলাকার মোদাচ্ছেরের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তারা।

কালীঘঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্ত্রীকে হত্যার পর শৈলেন কুমার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তাৎক্ষণিকভাবে তা বলা যাচ্ছে না।

শেয়ার