অচিরেই স্থায়ী কন্স্যুলেট অফিস হচ্ছে জহুর প্রদেশে

মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মহ. শহীদুল ইসলাম বলেছেন, ‘মালয়েশিয়ার দূর প্রদেশ জহুর বারুতে কর্মরত প্রবাসীদের সেবাদানে অচিরেই স্থায়ী কন্স্যুলেট অফিস খোলা হচ্ছে।’

স্থানীয় সময় (২ ফেব্রুয়ারি) শনিবার সকাল ১০টায় মালয়েশিয়ার সীমান্তবর্তী প্রদেশ জহুর বারুতে দূতাবাসের মোবাইল ক্যাম্পিং পরিদর্শনে গিয়ে সেবা প্রত্যাশিদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন তিনি।

শহীদুল ইসলাম মোবাইল ক্যাম্পিংয়ে সেবা নিতে আসা প্রবাসীদের উদ্দেশে বলেন, ‘মালয়েশিয়ার দূরবর্তী এ প্রদেশে প্রতিমাসের ছুটির দিন শনি ও রোববার পাসপোর্ট সেবা কার্যক্রম গত দুই বছর ধরে হাইকমিশনের কর্মকর্তারা দিয়ে আসছেন। আপনাদের সেবা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার আলোকে কেবল জহুর বারুতে নয় মালয়েশিয়ার অন্যান্য দূরবর্তী পেনাং, ক্যামেরুন হাইল্যান্ড, ক্লাং, মালাক্কাতেও সেবা কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। এতে আপনাদের কষ্ট ও দুর্ভোগ লাগব হয়েছে এবং আর্থিক সাশ্রয় হয়েছে।’

জহুর বারু অগ্রণী রেমিটেন্স হাউজে মতবিনিময়কালে প্রবাসীদের ভিবিন্ন সমস্যার কথা শুনে তাৎক্ষণিক সমস্যার সমাধান করেন হাইকমিশনার মহ. শহীদুল ইসলাম।

প্রবাসীদের উদ্দেশে হাইকমিশনার আরও বলেন, ‘কেবল প্রবাসীদের সার্ভিস প্রদানের জন্য জহুর বারুতে কন্স্যুলেট অফিস খুব শিগগিরই হতে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক ও দৃঢ় ভূমিকার ফলে কন্স্যুলেট অফিস খোলার বিষয়টি দ্রুততার সঙ্গে সম্পন্ন হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘যেকোনো সেবা নিতে হলে সরাসরি চলে আসেন কোনো মধ্যস্থতাকারী বা দালালের কাছে যাবেন না। এ ছাড়া মালয়েশিয়ায় যারা কর্মরত রয়েছেন তারা সম্মানের জায়গা করে নিয়েছেন। সে সম্মানের জায়গাটুকু ধরে রাখতে হলে যে দেশে কর্মরত রয়েছেন সে দেশের আইনকে সম্মান দেখাতে হবে। সব ধরনের অপপ্রচার থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান তিনি।

মতবিনিময় ও সেবা প্রত্যাশীদের সেবাদানকালে এ সময় উপস্থিত ছিলেন- দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রধান (প্রথম সচিব) মো. মশিউর রহমান তালুকদার, মালয়েশিয়ার অগ্রণী রেমিটেন্স হাউজের সিইও লুৎফুর রহমান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন, দূতাবাসের পাসপোর্ট শাখার কর্মকর্তা সুশান্ত সরকার, মো. আরিফ, উম্মে হানি ও জহুর বারু অগ্রণী রেমিটেন্স হাউজের ম্যানেজার মো. মোর্শেদ প্রমুখ।

শনিবার জহুর বারু মোবাইল ক্যাম্পিংয়ে প্রায় ৩ হাজারের অধিক প্রবাসী দূতাবাসের সেবা নিচ্ছেন। আগামীকাল রোববার সারাদিন পাসপোর্ট দেয়া হবে জানালেন পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রধান মো. মশিউর রহমান তালুকদার।

তিনি বলেন, ‘পাসপোর্ট আবেদনে যদি কোনো ত্রুটি না থাকে নির্ধারিত সময়ের আগে ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে। আমরা শনি ও রোববার জহুর বারুতে পাসপোর্ট বিতরণ করছি।’

মশিউর রহমান আরও বলেন, ‘দূতাবাস থেকে গত এক বছরে ১ লাখ ৯০ হাজার ৫৩২টি পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে।’