প্রতিবন্ধী ভাই ও চাচীকে গালি দেয়ার ঘটনার জের ধরে সাগরকে খুন করা হয়

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর শহরের সিটি কলেজ পাড়ার সাগর হোসেনকে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন আবু হুরাইরা। বাকপ্রতিবন্ধী ভাই ও চাচীকে গালিগালাজ করার প্রতিশোধ নিতে সাগরকে হত্যা করা হয়। এ হত্যাকান্ডে তার এক বন্ধু সহযোগিতা করেছে বলে আদালতকে জানিয়েছেন আবু হুরাইরা। মঙ্গলবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুদ্দীন হোসাইন জবানবন্দি গ্রহণ শেষে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন।
আবু হুরাইরা আদালতকে জানিয়েছেন, সাগর হোসেন গত বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে তাদের বাড়ির সামনে দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় তার বাকপ্রতিবন্ধী চাচাতো ভাই রিয়াদুল তার গায়ে কাঁদা লাগিয়ে দেয়। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে রিয়াদুলকে মারপিট করে। রিয়াদুল বিষয়টি বাড়ি গিয়ে ঘটনাটি তার মাকে জানায়। রিয়াদুলের মা সাগরের কাছে তাকে মারপিটের বিষয়টি জানতে চান। সাগর এসময় রিয়াদুলের মাকেও গালিগালাজ করে। ওইদিন বিকেলে বিষয়টি আবু হুরাইরাকে জানায় তার চাচী। আবু হুরাইরা সাগরের কাছে জানতে চাইলে দুইজনের বাকবিত-া হয়। রাতে এশার আজানের সময় বৌ-বাজার এলাকার ৩ নম্বর কলোনী জামে মসজিদের পাশে সাগরের সাথে আবু হুরাইরা ও তার এক বন্ধুর দেখা হয়। এ সময় কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সাগর তার বন্ধু আবু হুরাইরাকে ছুরিকাঘাত করে। এর মধ্যে আবু হুরাইরা ও তার বন্ধু সাগরের ছুরি কেড়ে নিয়ে পাল্টা তাকেই ছুরিকাঘাত করে গুরুতর জখম করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাগর মারা যায়।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, পিতা জালাল উদ্দিন ছোট ছেলে সাগর মণিহার এলাকার দ্রুতি পরিবহন কাউন্টারের সামনে চা বিক্রি করেন। আসামিদের সাথে তাদের পূর্ব শত্রুতা ছিল। ২৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে ডেকে নিয়ে যায়। রাত ৯টার দিকে বৌ-বাজার এলাকার ৩ নম্বর কলোনী জামে মসজিদের পূর্ব পাশে নিয়ে হুরাইয়া ও তার সহযোগিরা সাগরকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর জখম করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সাগর মারা যায়। এ ব্যাপারে নিহতের বড় ভাই বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে আবু হুরাইরাসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। প্রথমে থানা এবং পরে সিআইডি পুলিশ মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায়। তদন্তকালে এজাহারনামীয় আসামি আবু হুরাইরাকে আটক করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। গতকাল তাকে আদালতে সোপর্দ করা হলে হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ওই জবানবন্দি দিয়েছেন।

শেয়ার