শ্যামনগর প্রেসক্লাবে ঘের মালিকদের সংবাদ সম্মেলন

সরদার সিদ্দিক, শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি॥ বৈধ ডিডকৃত মৎস্য ঘের জবরদখলকারীদের কবল থেকে দখলমৃক্ত করার লক্ষ্যে ঘের মালিকরা শ্যামনগর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সোমবার সকাল ১১ টায় শ্যামনগর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, ঘের মালিকদের পক্ষে মোঃ রফিকুল ইসলাম। শ্যামনগর উপজেলার নওয়াবেঁকী গ্রামের মৃত ময়নুদ্দীন আহম্মাদ মোড়লের ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি ও বড়কুপট গ্রামের মৃত আবু মোহাম্মদ গাজীর ছেলে আবুল বাশার, কাশিমাড়ী গ্রামের মৃত জব্বার গাজীর ছেলে আসাউল, আটুলিয়া গ্রামের ওয়াজেদ সানার ছেলে মোস্তফা কামাল এবং বয়ারসিং গ্রামের বিভূতি গং পার্টনারশিপে উপজেলার ১০ নং আটুলিয়া ইউনিয়নের তালবাড়িয়া মৌজার বয়ারসিং গ্রামের ‘যমুনা মৎস্য প্রকল্প’ নামীয় ঘেরে ৯ একর ৪৩ শতক ও ব্যক্তি মালিকানাধীন এবং ডিডকৃত সর্বমোট ১৬০ বিঘা জমি নিয়ে দীর্ঘ ৩১ বছর সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্নভাবে ঘের করে আসছি। কিন্তু এলাকার কয়েকজন ১১ জানুয়ারী গভীর রাতে মুক্তিযোদ্ধাদের সাইনবোর্ড লাগিয়ে ঐ ঘের দখল করেছে।
উল্লেখ্য ইতিপূর্বে ঐ ঘের দখলের লক্ষ্যে তারা বিভিন্ন আদালতে মামলা করে পারাজিত হয়েছে। এরপর তারা এডিসি রেভিনিউ আদালতে মামলা করে, মামলা নং- ২৬/২০১৭। ১৩/৮/১৮। কিন্তু ঐ মামলাও খারিজ হয়েযায়। সর্বশেষ খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আদালতে ৯/১২/২০১৮ তারিখ মামলা দায়ের করে। এ মামলা চলমান, আগামী ১০মার্চ পরবর্তী দিন ধার্য আছে। এঅবস্থায় তারা কোন উপায় না পেয়ে ১১ জানুয়ারী গভীর রাতে মুক্তিযোদ্ধার সাইনবোর্ড লাগিয়ে ঘেরটি দখল করে। এ ঘটনায় শ্যামনগর থানায় ডায়েরী করি। থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নোটিশ দিয়ে তাদের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে। তিনি বলেন এমতাবস্থায় আমরা যাতে আমাদের বৈধ ঘের শান্তিপূর্নভাবে পরিচালনা করতে পারি সে দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি কামনা করে এই সংবাদ সম্মেলন করছি।

শেয়ার