প্রধানমন্ত্রীর আস্থার প্রতিদান দিতে সারাদেশের সাথে যশোরের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবো : এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেছেন, নির্বাচনী ইশতেহার এবং এলাকা ভিত্তিক উন্নয়ন পরিকল্পিতভাবে করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন। শপথের পরদিনই আমরা মন্ত্রণালয়ের কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ইশতেহার অনুযায়ী আমরা ‘গ্রামকে শহরে রুপান্তরের’ জন্য কাজ করবো।
গতকাল বুধবার যশোর সার্কিট হাউজে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এসব কথা বলেন। এর আগে যশোরে এসেই প্রতিমন্ত্রী শহরের বকুলতলাস্থ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। আর মতবিনিময় সভার শুরুতে প্রতিমন্ত্রীকে প্রেসক্লাব যশোরসহ সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এসময় প্রতিমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাব যশোরের সাবেক সভাপতি একরাম-উদ-দ্দৌলা ও বর্তমান সম্পাদক তৌহিদুর রহমান।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি, রাজনীতি সাধারণ মানুষের জন্য, খেটে খাওয়া মানুষের জন্য। এই উপলব্ধি থেকে সাধারণ মানুষের সাথে মিশেছি। তাদের উন্নয়নে অতীতে কাজ করেছি। এসব কারণে জনমত জরিপে আমি এগিয়ে ছিলাম। তাই আমাকে প্রধানমন্ত্রী দলীয় মনোনয়ন দিয়েছিলেন। একই কারণে আমি মন্ত্রী হয়েছি। তাই আমার লক্ষ্য হবে সাধারণ মানুষের উন্নয়নে কাজ করা।
স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, নির্বাচনে আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবো তা নিশ্চিত ছিলাম। কিন্তু মন্ত্রী হবো তা জানতাম না। সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়ে আমি বাজার করতে গিয়েছি। সেখান থেকে ফিরে টেলিফোনে মন্ত্রী হওয়ার খবর পাই। আমি অত্যন্ত সাধারণ জীবনযাপন করি। মন্ত্রী হয়েও তার পরিবর্তন হবে না। প্রধানমন্ত্রীর আস্থার প্রতিদান দিতে আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো।
মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, শপথের পর আজ (বুধবার) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে গোপালগঞ্জে গিয়েছিলাম। সেখানে প্রধানমন্ত্রী সব মন্ত্রীর সাথে বৈঠক করেছেন। আমাদের তিনি নির্বাচনী ইসতেহার বাস্তবায়নে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। একই সাথে এলাকার মানুষের দাবি বাস্তবায়নেও কাজ করতে বলেছেন। আমি তার আস্থার প্রতিদান দিয়ে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে আপনাদের পরামর্শ চাই।
‘রাজনৈতিক জীবনে আমি বরাবর আপনাদের (সাংবাদিকদের) সহযোগিতা পেয়েছি। আগামীতে আপনাদের সেই সহযোগিতা নিয়ে সারাদেশের সাথে যশোরের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারব বলে আশা করছি।’
মতবিনিময় সভায় যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল, প্রতিমন্ত্রীর স্ত্রী যশোর জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তন্দ্রা ভট্টাচার্য্যসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং যশোরের সর্বস্তরের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার