লোহাগড়ায় বৃদ্ধাকে গলাকেটে হত্যা

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি॥ নড়াইলের লোহাগড়ার দিঘলিয়া ইউপির বাগডাঙ্গা সারোল গ্রামে হাজেরা বেগম বড়– বিবি (৯৮) নামে এক বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার (৪ জানুয়ারি) গভীর রাতে এই নৃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।
গ্রামবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাগডাঙ্গা সারোল গ্রামের মৃত আমির হোসেন খানের স্ত্রী হাজেরা বেগম বড়– বিবি শুক্রবার রাতে নিজ বাড়ির ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। দুর্বৃত্তরা গভীর রাতে ওই ঘরের বেড়া কেটে প্রবেশ করে দরজা খুলে বড়– বিবিকে বাড়ি সংলগ্ন পুকুরপাড়ে নিয়ে জবাই করে হত্যা করে রেখে যায়। পরে ওই বৃদ্ধার ঘরেই অন্য রুমে ঘুমিয়ে থাকা শ্রমিক (কাজের ছেলে) আলামিন প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে উঠলে ঘরের বেড়া ভাঙ্গা ও দরজা খোলা দেখতে পায়। আলামিন অনেক খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বৃদ্ধাকে জবাই করা অবস্থায় পুকুরপাড়ে দেখতে পেয়ে লোকজনকে খবর দেয়। আলামিন বোয়ালমারি থানার আফছার ভূঁইয়ার ছেলে। বৃদ্ধার বাড়িতে কাজ করতেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই গ্রামের কয়েকজন জানান, দেড় দু’মাস আগে জমাজমি নিয়ে বিরোধে ওই গ্রামের সেকন মোল্যাকে কুপিয়ে জখম করে বড়– বিবির বড় ছেলে আকরাম খানের ছেলে আজিজুরসহ তার সহযোগীরা। এঘটনায় সেকন মোল্যা বাদি হয়ে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় বড়– বিবির আত্মীয়-স্বজনকে আসামি করা হয়। অভিযোগ রয়েছে, ওই মামলা থেকে রক্ষা পেতে ও প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজেরাই বৃদ্ধা বড়– বিবিকে জবাই করে হত্যা করেছে।
পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রবীর কুমার বিশ^াস জানান, সন্দেহভাজনদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

শেয়ার