প্রতিবেশী দেশেও কাতার বিশ্বকাপের ম্যাচ আয়োজনের কথা ভাবছে ফিফা

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ২০২২ বিশ্বকাপের কিছু ম্যাচ কাতারের প্রতিবেশী দেশগুলোতেও আয়োজনের সম্ভাবনা নিয়ে ফিফা ভাবছে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

বুধবার দুবাইয়ে একটি ক্রীড়া সম্মেলনে ইনফান্তিনো আরও নিশ্চিত করেন, কাতার বিশ্বকাপে দল সংখ্যা ৪৮-এ বাড়ানোর সম্ভাবনার বিষয়টি তারা দেখছেন। সেক্ষেত্রে এই অঞ্চলের রাজনৈতিক টানাপোড়েনের সমস্যা অতিক্রম করতে হবে বলেও জানান তিনি।

“আমরা যদি কাতারের প্রতিবেশী দেশগুলোতে কিছু ম্যাচ আয়োজনের ব্যবস্থা করতে পারি, তাহলে সেটা এই অঞ্চল এবং বিশ্ব ফুটবলের জন্য খুবই লাভজনক হতে পারে।”

“এই অঞ্চলে কিছু উত্তেজনা আছে এবং বিষয়গুলোর সমাধান দেশগুলোর নেতাদের হাতে। হয়তবা আরও জটিল বিষয়গুলোর চেয়ে ফুটবলের যৌথ উদ্যোগ নিয়ে কথা বলা সহজ।”

“যদি আমরা উপসাগরীয় অঞ্চলের সব মানুষকে সাহায্য করতে পারি, পৃথিবীর সব দেশের ফুটবলের উন্নতি করতে পারি এবং ফুটবল দিয়ে বিশ্বের জন্য একটা ইতিবাচক বার্তা নিয়ে আসতে পারি, তাহলে সে চেষ্টাটা করা উচিত।”

কাতারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের অভিযোগ করে ২০১৭ সালের জুন মাস থেকে সৌদি আরব, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিশর কুটনৈতিক, পরিবহণ ও বানিজ্যিক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে। কাতার অবশ্য এসব অভিযোগ প্রত্যাখান করেছে। বিষয়টি বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো যৌথভাবে আয়োজনের ক্ষেত্রে জটিলতা তৈরি করে রেখেছে।

গত মাসে ইনফান্তিনো জানিয়েছিলেন, অধিকাংশ ফুটবল ফেডারেশন বিশ্বকাপের ব্যাপ্তি বাড়ানোর পক্ষে। আগামী মার্চে ড্রয়ের আগে দলসংখ্যা বাড়ানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আশাপ্রকাশ করেছিলেন তিনি।

২০১৭ সালে সদস্যদের ভোটে ৩২ দলের বদলে ২০২৬ বিশ্বকাপ ৪৮ দলে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয় ফিফা। ফুটবলের সর্বোচ্চ প্রতিযোগিতার এই আসর অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও মেক্সিকোয়। সে সময়ই কাতার বিশ্বকাপও ৪৮ দল নিয়ে করার সম্ভাবনার কথা জানিয়েছিলেন ফিফা প্রধান। দুবাইয়েও একই কথা জানান ইনফান্তিনো।

“যদি আপনারা মনে করেন বিশ্বকাপে ৪৮ দল থাকা ভালো বিষয় হবে, তাহলে সেটা আরও চার বছর আগে কেন নয়। এ কারণে আমরা ২০২২ বিশ্বকাপ ৪৮ দল নিয়ে আয়োজনের সম্ভাবনার বিষয়টি পর্যালোচনা করছি।”

“কাতার বিশ্বকাপ ৩২ দল নিয়ে হবে। যদি আমরা দল সংখ্যা ৪৮ করতে পারি এবং বিশ্বকে খুশি করতে পারি তাহলে আমাদের অবশ্যই সেই চেষ্টা করা উচিত।”

বিশ্বকাপের দল বাড়ানো নিয়ে ফিফার কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য না পাওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে কাতার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে না বলে জানিয়েছে।

শেয়ার