অধিনায়ক মিরাজের ‘বড় সুযোগ’

সমাজের কথা ডেস্ক॥ দুটি যুব বিশ্বকাপে দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। জাতীয় দলের ভবিষ্যৎ অধিনায়ক হিসেবেও তাকে দেখেন অনেকে। সময়ের সঙ্গে নেতৃত্বগুণ কতটা সমৃদ্ধ হচ্ছে, সেটি প্রমাণের একটি মঞ্চ পেলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এবারের বিপিএলে নেতৃত্ব দেবেন রাজশাহী কিংসকে। তরুণ এই অলরাউন্ডার এটিকে বলছেন বড় সুযোগ।
এবার রাজশাহীর অধিনায়ক করা হতে পারে মিরাজকে, সেই গুঞ্জন ছিল কিছুদিন ধরেই। আলোচনায় ছিল মুমিনুল হক ও সৌম্য সরকারের নামও। বৃহস্পতিবার দুপুরে জাঁকালো এক আয়োজনে আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় নিশ্চিত করা হয়, মিরাজ পাচ্ছেন রাজশাহীর অধিনায়কত্ব, তার ডেপুটি সৌম্য।

যুব পর্যায় থেকেই সহজাত নেতৃত্বগুণের জন্য আলোচনায় এসেছেন মিরাজ। অনূর্ধ্ব-১৯ দল থেকেই চলে এসেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে, তাই হাই পারফরম্যান্স বা ‘এ’ দলে তার নেতৃত্ব সেভাবে দেখানোর সুযোগ হয়নি। বিপিএলে সেই সুযোগ পেয়ে রোমাঞ্চিত এই তরুণ অলরাউন্ডার।

“এটি আমার জন্য অনেক বড় একটি সুযোগ। এমন বড় টুর্নামেন্টে আগে কখনও অধিনায়কত্ব করা হয়নি। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে অধিনায়কত্ব করেছি, দেশের জন্য। সেখানে বয়স সীমিত থাকে। কিন্তু এখানে অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছেন। বিভিন্ন দেশের ক্রিকেটার এবং বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা আছেন। আমার কাছে মনে হয় এটি অনেক বড় অভিজ্ঞতা হবে আমার জন্য।”

“আমার জন্য এটি ভালো একটি সুযোগ। চেষ্টা করব শতভাগ দেওয়ার জন্য। আমার যে অভিজ্ঞতা আছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে, বয়সভিত্তিক লেভেলে যে অধিনায়কত্ব করেছি, সেই অভিজ্ঞতা আমার কাজে লাগবে আশা করি।”
বিপিএলে এর আগে ড্যারেন স্যামির মতো অধিনায়কের নেতৃত্বে খেলেছেন মিরাজ। জাতীয় দলে মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসানদের নেতৃত্বে খেলছেন। কাছ থেকে দেখার সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে নিজের ক্ষেত্রে, বিশ্বাস মিরাজের।
“আমি রাজশাহী কিংসের হয়ে তৃতীয় আসরে খেলছি। গত দুই বছরে ভালো অভিজ্ঞতা হয়েছে। স্যামির অধিনায়কত্ব আমি দেখেছি, কিভাবে টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়কত্ব করে। বাংলাদেশ দলেও অনেক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছি। সাকিব ভাই এবং মাশরাফি ভাই অধিনায়ক ছিলেন এবং আরও সিনিয়র ক্রিকেটার যারা আছেন, তাদেরকেও দেখেছি। বিষয়গুলো আমার কাজে লাগবে।”
“এগুলো আসলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আমি যখনই খেলেছি তাদের সঙ্গে এবং সুযোগ পেয়েছি, আমি এই ব্যাপারগুলো সবসময় চিন্তা করতাম এবং মাথায় সব সময় রাখতাম। আমার মনে হয় এগুলো কাজে দেবে।”

শেয়ার